Wednesday, May 29, 2024

সেকশন

English
Dhaka Tribune

ছেলে না হওয়ায় দুধের শিশুকে হত্যা করলেন বাবা

কন্যা সন্তান হওয়ার পর স্ত্রী সীমার সঙ্গে রাগ করে কোনো কথা বলতেন না স্বামী জাহাঙ্গীর

আপডেট : ১৮ জানুয়ারি ২০২০, ০৫:৪০ পিএম

বরগুনার আমতলী উপজেলায় ছেলে না হওয়ায় জিদনী নামের এক মাস ১০ দিন বয়সের এক কন্যাশিশুকে হত্যা করেছেন তার বাবা। 

শনিবার(১৮ জানুয়ারি) দুপুরে উপজেলার গুলিশাখালী ইউনিয়নের গোছখালী গ্রাম থেকে শিশুটির জাহাঙ্গীর সিকদার নামের ওই ব্যক্তিকে গ্রেফতার করেছে পুলিশ। 

এর আগে শুক্রবার(১৭ জানুয়ারি) অজ্ঞাতনামা আসামিদের নামে নিহত শিশুর মা সীমা বেগম বাদি হয়ে আমতলী থানায় একটি হত্যা মামলা দায়ের করেন। 

পরে প্রাথমিক জিজ্ঞাসাবাদের জন্য বাবা জাহাঙ্গীর সিকদারকে থানায় নিয়ে গেলে তিনি মেয়েকে হত্যার কথা স্বীকার করেন। 

স্থানীয় ও আমতলী থানা সুত্রে জানা গেছে,  গুলিশাখালী ইউনিয়নের গোছখালী গ্রামের জাহাঙ্গীর ও সীমা দম্পতির সোহাগী (৯) এবং জান্নাতী (৩) নামের দুটি কন্যা সন্তান রয়েছে। ২০১৯ সালের ৮ ডিসেম্বর ওই দম্পতির জিদনী নামের আরেকটি কন্যা সন্তানের জন্ম হয়। 

জাহাঙ্গীর কন্যা সন্তান জন্মের বিষয়টি মেনে নিতে পারেনি। তিনি পুত্র সন্তানের আশা করেছিলেন। কন্যা শিশু জন্মের পর থেকেই জাহাঙ্গীর ও তার স্ত্রীর মধ্যে বিভিন্ন বিষয় নিয়ে ঝগড়া-বিবাদ শুরু হয়। 

বৃহস্পতিবার রাত ১০টার দিকে বাবা জাহাঙ্গীর সিকদার জিদনীকে নিয়ে ঘরে শুয়ে ছিলেন। এসময় তার স্ত্রী সীমা এবং শাশুড়ি পারুল বেগম ঘরের বাইরে কাজ করছিলেন। শিশুটির মা সীমা ও নানী পারুল কাজ শেষে রাত ১১টার দিকে ঘরে ঢুকে জিদানী ও তার বাবা জাহাঙ্গীর কে দেখতে না পেয়ে চিৎকার দেন। এতে প্রতিবেশী এবং বাড়ির অন্য লোকজন ছুটে আসে। পরে স্বজনরা খোঁজাখুজির এক পর্যায়ে রাত সাড়ে ১১টার দিকে ঘরের পেছনের ডোবা থেকে কাঁথায় মোড়ানো জিদনির মরদেহ উদ্ধার করে। 

খবর পেয়ে ঘটনাস্থলে আমতলী থানা পুলিশ দিবাগত রাত ৩টার দিকে শিশুটির মরদেহ উদ্ধার করে ময়নাতদন্তের জন্য বরগুনা জেনারেল হাসপাতালের মর্গে পাঠায়। 

স্থানীয় ইউনিয়ন পরিষদের (ইউপি) সদস্য ময়না বেগম জানান, কন্যা সন্তান হওয়ার পর স্ত্রী সীমার সঙ্গে রাগ করে কোনো কথা বলতেন না স্বামী জাহাঙ্গীর। সন্তান জিদনীকে নতুন কাপড়ও কিনে দেননি তিনি।

পানিতে ফেলে শিশু হত্যার খবর পেয়ে বরগুনার অতিরিক্ত পুলিশ সুপার (বরগুনা সদর) মহরম আলী, আমতলী-তালতলী সার্কেলের সহকারী পুলিশ সুপার সৈয়দ রবিউল ইসলাম এবং আমতলী থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) ঘটনাস্থল পরিদর্শন করেছেন। 

আমতলী থানার ওসি আবুল বাশার বলেন, ৪০ দিন বয়সী শিশুকে হত্যার দায়ে তার বাবা জাহাঙ্গীর সিকদারকে গ্রেফতার করা হয়েছে। প্রাথমিক জিজ্ঞাসাবাদে শিশুটিকে হত্যার কথা স্বীকার করেছেন শিশুটির বাবা। আগামীকালকে তাকে আদালতে সোপর্দ করা হবে।

About

Popular Links