• বৃহস্পতিবার, জুন ২৭, ২০১৯
  • সর্বশেষ আপডেট : ১০:৩০ রাত

নির্ধারিত সময়ের আগেই শেষ হচ্ছে মেট্রো রেলের কাজ

  • প্রকাশিত ০১:৪৩ দুপুর জুলাই ১৯, ২০১৮
capture-1531941558347-1531985834594.jpg
ছবি- সৈয়দ জাকির হোসেন/ঢাকা ট্রিবিউন

মেট্রো রেলের নির্মাণ কাজ সম্পন্ন হলে এটি রাজধানীর সবচেয়ে সময় বাঁচানো, নিরাপদ, স্বস্তিদায়ক ও পরিবেশ-বান্ধব যোগাযোগের মাধ্যম হবে

বাংলাদেশের প্রথম মেট্রো রেল নির্মাণের কাজ শেষ হওয়ার নির্ধারিত সময় ছিল ২০২৪ সাল। তবে সরকারের বিশেষ ব্যবস্থার মাধ্যমে ২০১৯ সালের ডিসেম্বরের মধ্যেই এর কাজ সম্পন্ন হয়ে যাবে জানাচ্ছেন প্রকল্প সংশ্লিষ্টরা।  

ম্যাস র‍্যাপিড ট্রানজিট (এমআরটি) লাইন-৬ এর বাস্তবায়নকারী এজেন্সি, ঢাকা ম্যাস ট্রানজিট কোম্পানি লিমিটেড (ডিএমটিসিএল) উত্তরা-আগারগাঁও সেকশনের কাজ সম্পন্ন করতে দিনরাত কাজ করে যাচ্ছে। এর স্লোগান হচ্ছে, “জনমানুষের সচলতা, বাঁচবে সময় ও শক্তি” (Moving people, saving time and energy.)

এই রুটের বাকি কাজ, যা আগারগাঁও থেকে মতিঝিল পর্যন্ত, সম্পন্ন হবে ২০২০ এর ডিসেম্বরে।  এটিও নির্ধারিন সময়ের আগেই সম্পন্ন হতে যাচ্ছে।

মেট্রো রেলের নির্মাণ কাজ সম্পন্ন হলে এটি রাজধানীর সবচেয়ে সময় বাঁচানো, নিরাপদ, স্বস্তিদায়ক ও পরিবেশ-বান্ধব যোগাযোগের মাধ্যম হবে। ঢাকাকে অনেক বেশি গতিশীল ও যোগাযোগ-বান্ধব করবে এই মেট্রোরেল।

ডিএমটিসিএল-এর ব্যবস্থাপনা পরিচালক এমএএন সিদ্দিকী জানান, “প্রকল্প নির্বিঘ্নেই আগাচ্ছে। ঢাকার সবার জীবনকে আরও সহজ করতেই এমআরটি লাইন-৬ এর কাজ চলছে। উত্তরা থেকে মতিঝিল পর্যন্ত এটি চলবে। প্রায় ২০ কিলোমিটার দূরত্বের এই রুটে ১৬টি স্টেশন থাকবে।”

মেট্রোরেল প্রকল্পে এর কর্মকর্তা জানান আগামী বছর থেকেই রাজধানীর অধিবাসীরা মেট্রো রেলের সুবিধা পাবে। এছাড়া সম্পূর্ণ প্রকল্প আগামী ২০২০ সালের মধ্যে সম্পন্ন করতে ব্যাপক কর্মযজ্ঞ চলছে। 

প্রতি ঘন্টায় ৬০ হাজার মানুষ মেট্রো রেলে চলাচল করতে পারবে। ২০২১ সাল থেকে আনুমানিক ৫ লক্ষ লোক প্রতিদিন এমআরটি লাইন-৬ এর মাধ্যমে মেট্রো রেলে চলাচল করতে পারবে।