• শনিবার, অক্টোবর ২০, ২০১৮
  • সর্বশেষ আপডেট : ০৩:৩৩ বিকেল

নিহত দুই শিক্ষার্থীর পরিবারের সাথে সাক্ষাৎ প্রধানমন্ত্রীর

  • প্রকাশিত ০৪:৩০ বিকেল আগস্ট ২, ২০১৮
PM
নিহত শিক্ষার্থীদের পরিবারের সাথে সাক্ষাৎ করলেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। ছবি: সংগৃহীত

রাজধানীর বিমানবন্দর সড়কে দুর্ঘটনায় নিহত দুই শিক্ষার্থীর পরিবারের সাথে সাক্ষাৎ করেছেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। সাক্ষাৎকালে নিহতদের পরিবারকে সান্ত্বনা ও প্রত্যেক পরিবারকে ২০ লাখ টাকা করে পারিবারিক সঞ্চয়পত্র অনুদান দিয়েছেন তিনি।

রাজধানীর বিমানবন্দর সড়কে দুর্ঘটনায় নিহত দুই শিক্ষার্থীর পরিবারের সাথে সাক্ষাৎ করেছেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। সাক্ষাৎকালে নিহতদের পরিবারকে সান্ত্বনা ও প্রত্যেক পরিবারকে ২০ লাখ টাকা করে পারিবারিক সঞ্চয়পত্র অনুদান দিয়েছেন তিনি। আজ বৃহস্পতিবার সকালে তাঁর কার্যালয়ে এ সাক্ষাতের কথা নিশ্চিত করেছেন প্রধানমন্ত্রীর ডেপুটি প্রেস সেক্রেটারি আশরাফুল আলম খোকন।

উল্লেখ্য যে, গত রবিবার (২৯ জুলাই) দুপুরে বিমানবন্দর সড়কে রমিজউদ্দিন ক্যান্টনমেন্ট কলেজের দুই শিক্ষার্থী জাবালে নুর পরিবহনের একটি বাস চাপা দিলে ঘটনাস্থলেই তারা নিহত হন।  

এরপর দুপুর সাড়ে ১২টায় বিমানবন্দর সড়কের বাঁ-পাশে বাসের জন্য অপেক্ষা করার সময় জাবালে নূর পরিবহনের একটি বাস তাদের চাপা দিলে এ দুর্ঘটনা ঘটে।

নিহতরা হলেন একাদশ শ্রেণীর দিয়া খানম মীম ও দ্বাদশ শ্রেণীর আব্দুল করিম সজিব।

 

এছাড়াও বেশ কয়েকজন শিক্ষার্থী গুরুতর আহত হয় বাসটির ধাক্কায়। 

দূর্ঘটনায় আহতদের নিকটবর্তী কুর্মিটোলা হাসপাতালে নিয়ে যাওয়া হলে সেখান থেকে আশঙ্কাজনক কয়েকজনকে সিএমএইচ’এ ভর্তি করা হয়।

কলেজ শিক্ষার্থী মৃত্যুর খবর ছড়িয়ে পড়লে বিক্ষুব্ধ কলেজের শিক্ষার্থীরা জাবালে নূর পরিবহনের ওই বাসে আগুন ধরিয়ে দেয়। এছাড়াও মহাসড়কে শতাধিক বাস ভাঙচুর করে। 

পরবর্তীতে দুর্ঘটনায় সংশ্লিষ্ট চালকের দৃষ্টান্তমূলক শাস্তি, নিরাপদ সড়ক নিশ্চিতকরণ ও নৌপরিবহনমন্ত্রীর অনৈতিক বক্তব্যের প্রতিবাদসহ ৯ দফা দাবি জানিয়েছিলো শিক্ষার্থীরা। আজ পঞ্চম দিনের মতো রাজধানীর বিভিন্ন স্কুল কলেজের শিক্ষার্থীরা রাজধানীর সড়ক অবরোধের পাশাপাশি গাড়ি থামিয়ে লাইসেন্স ও গাড়ির ফিটনেস সার্টিফিকেট ইত্যাদি যাচাই করেছেন। 

গতকাল বুধবার (১ আগস্ট) বিকালে বাস মালিক ও শ্রমিকদের সঙ্গে বৈঠক করে শিক্ষার্থীদের দাবি মেনে নেওয়ার কথা জানান স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী।