• মঙ্গলবার, ডিসেম্বর ১১, ২০১৮
  • সর্বশেষ আপডেট : ১০:৫৪ রাত

সাইন্সল্যাবে সার্জেন্টের মোটরসাইকেলে আগুন

  • প্রকাশিত ০৮:৩২ সকাল আগস্ট ৩, ২০১৮
police bike on fire
দুর্ব্যবহার করায় সার্জেন্টের মোটরসাইকেলে আগুন দেয় বিক্ষুব্ধ শিক্ষার্থীরা। ছবি: আসিফ ইসলাম শাওন/ঢাকা ট্রিবিউন

প্রত্যক্ষদর্শীদের একজন জানান, আন্দোলনরত শিক্ষার্থীরা তাকে থামিয়ে তার লাইসেন্স চেক করতে চাইলে তিনি লাইসেন্স না দেখিয়ে উল্টো তাদের সাথে দুর্ব্যবহার করে।

রাজধানীর ল্যাবএইড হাসপাতালের সামনে আন্দোলনরত শিক্ষার্থীরা দায়িত্বরত এক ট্রাফিক সার্জেন্টের মোটরসাইকেলে আগুন দিয়ে দিয়েছে। 

বৃহস্পতিবার বেলা আড়াইটার দিকে আন্দোলনরত শিক্ষার্থীদের একটি দল ঢাকা মেট্রোপলিটন পুলিশের ট্রাফিক সার্জেন্ট বায়েজিদকে লাইসেন্স দেখাতে বললে তিনি লাইসেন্স না দেখিয়ে উল্টো ছাত্রদের সঙ্গে দুর্ব্যবহার করেন।

প্রত্যক্ষদর্শীদের একজন জানান, আন্দোলনরত শিক্ষার্থীরা তাকে থামিয়ে তার লাইসেন্স চেক করতে চাইলে তিনি লাইসেন্স না দেখিয়ে উল্টো তাদের সাথে দুর্ব্যবহার করে।

এমনকি তিনি একজন শিক্ষার্থীকে মাটিতে ফেলে লাঠিচার্জ করতেও উদ্যত হন। এতে বিক্ষুব্ধ আন্দোলনরত শিক্ষার্থীদের মধ্যে আরও ক্ষোভের সৃষ্টি হলে তারা তাকে তৎক্ষণাৎ গণপিটুনি দেয়। সেই সাথে তার মোটরসাইকেল ভেঙ্গে তাতে আগুন দেয়া হয়। 

এরপর বায়েজিদ কোনোমতে দৌড়ে সায়েন্স ল্যাব মোড়ের পুলিশ বক্সে আশ্রয় নিলে সেখান থেকে অন্যান্য পুলিশ এবং শিক্ষার্থীদের সাহায্যে এ্যাম্বুলেন্সে করে আহত বায়েজিদকে ধানমণ্ডির পপুলার মেডিক্যাল কলেজ অ্যান্ড হসপিটালে নিয়ে যাওয়া হয়।

প্রসঙ্গত, গত রোববার রাজধানীর বিমানবন্দর সড়কে বাসচাপায় দুই শিক্ষার্থীকে ‘হত্যা’ এবং নিরাপদ সড়কের দাবিতে স্কুল কলেজ এবং বিশ্ববিদ্যালয়সহ বিভিন্ন শিক্ষা প্রতিষ্ঠানের সহস্র শিক্ষার্থী রাজধানীর বিভিন্ন এলাকায় আন্দোলন করে আসছে। তাদের এই আন্দোলনেরই একটি অংশ হিসেবে তারা নিজ দায়িত্বে ট্রাফিক আইনের সুষ্ঠু প্রয়োগের জন্য রাস্তায় চালকদের লাইসেন্স চেক করছে।