• সোমবার, জানুয়ারী ২০, ২০২০
  • সর্বশেষ আপডেট : ১২:৪৫ রাত

টাঙ্গাইলে একদিনেই ৭টি বাল্যবিবাহ বন্ধ করলেন ইউএনও

  • প্রকাশিত ০৮:৫২ রাত আগস্ট ২৮, ২০১৮
Tangail
মানচিত্রে টাঙ্গাইল। ছবি: সংগৃহীত

ইউএনও মুছাম্মৎ শাহীনা আক্তার বলেন,  বাল্যবিবাহ প্রতিরোধে এ অভিযান অব্যাহত থাকবে।

টাঙ্গাইলের কালিহাতীতে একদিনেই ৭টি বাল্যবিবাহ বন্ধ করলেন উপজেলা নির্বাহী অফিসার (ইউএনও) মুছাম্মৎ শাহীনা আক্তার। উপজেলার বিভিন্ন স্থানে সোমবার রাত পর্যন্ত গোপন সংবাদের ভিত্তিতে তিনি এ বাল্যবিয়ে গুলো বন্ধ করেন।

এ ব্যাপারে উপজেলা নির্বাহী অফিসার (ইউএনও) মুছাম্মৎ শাহীনা আক্তার বলেন, গোপন সংবাদের ভিত্তিতে জানতে পারি উপজেলার পারখী ইউনিয়নের পূর্বাশুন্ডা পশ্চিমপাড়া গ্রামের আব্দুল লতিফের মেয়ে লতা (১৭), সরিষাআটা গ্রামের ওমর আলীর মেয়ে তাহমিনা আক্তার তমা (১৩), নারান্দিয়া ইউনিয়নের পালিমা দিগলাপাড়া গ্রামের লিটনের মেয়ে লিজা (১৪), কোকডহড়া ইউনিয়নের বড় হরিসভা গ্রামের আমিনুর ইসলামের মেয়ে আফিয়া আক্তার (১৫) বাল্যবিবাহ হচ্ছে। খবর পেয়ে তাৎক্ষণিকভাবে ওই এলাকায় সরেজমিনে গিয়ে বাল্য বিয়ে বন্ধ করি।

অপরদিকে ঘাটাইল উপজেলার মেয়ে সেতুকে (১৩) কালিহাতী উপজেলার পাছজোয়াইর গ্রামের লাল সানের বাড়িতে, একই উপজেলার মেয়ে রিতাকে (১৪) কালিহাতী উপজেলার বর্গা গ্রামের আব্দুল হামিদের ছেলে সালামের সাথে, বর্গা বাজারের উত্তর পাশে শামসুলের বাড়ীতে তার ছেলে আসাদুলের সাথে সুলতানা (১৬) নামের মেয়েকে বাল্যবিবাহ দেওয়া হচ্ছে এমন খবর পেয়ে সেগুলোও বন্ধ করা হয়। পরে অভিভাবকরা বাল্যবিবাহ দিবেন না মর্মে মুচলেকা দিলে তাদেরকে ছেড়ে দেওয়া হয়েছে। সোমবার রাত পর্যন্ত এ সব বাল্য বিয়ে বন্ধ করা হয়। 

তিনি আরো বলেন,  বাল্যবিবাহ প্রতিরোধে এ অভিযান অব্যাহত থাকবে।