• সোমবার, জুন ১৭, ২০১৯
  • সর্বশেষ আপডেট : ১০:৫৯ রাত

বিআরটিসির সেই বাসের ফিটনেস ছিল না!

  • প্রকাশিত ১১:০৬ রাত সেপ্টেম্বর ৩, ২০১৮
রংপুরে দুই বাসের মুখোমুখি সংঘর্ষে নিহত হয় আটজন।
রংপুরে দুই বাসের মুখোমুখি সংঘর্ষে নিহত হয় আটজন। ছবি : সংগৃহীত

আজ সোমবার রাতে ঢাকা ট্রিবিউনকে এ তথ্য জানিয়েছেন তদন্ত কমিটির সদস্য ও বাংলাদেশে সড়ক পরিবহন কর্তৃপক্ষের (বিআরটিএ) রংপুর অফিসের উপপরিচালক আবদুল কুদ্দুস।

রংপুর নগরীর সিও বাজার এলাকায় দুই বাসের মুখোমুখি সংঘর্ষে আটজন নিহত হওয়ার ঘটনায় বাংলাদেশে সড়ক পরিবহন করপোরেশনের (বিআরটিসি) বাসটির ফিটনেস সার্টিফিকেট ছিল না বলে প্রাথমিক অনুসন্ধান শেষে  জানা গেছে। 

আজ সোমবার রাতে ঢাকা ট্রিবিউনকে এ তথ্য জানিয়েছেন তদন্ত কমিটির সদস্য ও বাংলাদেশে সড়ক পরিবহন কর্তৃপক্ষের (বিআরটিএ) রংপুর অফিসের উপপরিচালক আবদুল কুদ্দুস।

এক প্রশ্নের উত্তরে আবদুল কুদ্দুস বলেন, ‘বিআরটিসি বাসটির কোনো ফিটনেস ছিলো না বলে প্রাথমিক অনুসন্ধানে জানা গেছে। আমি আমাদের অফিসে খোঁজ করে দেখেছি। কোনো ফিটনেস সংক্রান্ত কাগজ পাইনি। তার পরেও তদন্তকালে আরও ভালোভাবে নিশ্চিত হওয়ার পর বলতে পারবো।’ 

‘অন্যদিকে অপর বাসটির ফিটনেস ছিল বলে কাগজপত্রে দেখেছি। তবে এসব এখনই চুড়ান্ত করে বলার সময় আসেনি। আমরা তদন্ত কমিটি বাস দুটি পরীক্ষা নিরীক্ষা করে দেখব। তার পরেই নিশ্চিত করে বলতে পারব কী কারণে দুর্ঘটনা ঘটলো। কারা দায়ী পুরো বিষয় তখনই বলতে পারবো।’ 

অপর এক প্রশ্নের উত্তরে বিআরটিএর এই কর্মকর্তা বলেন, ‘তদন্ত কমিটিকে সাত কার্যদিবসের মধ্যে তদন্ত করতে বলা হয়েছে। আমরা আশা করছি যথাসময়ে তদন্ত শেষ করতে পারবো।

আবদুল কুদ্দুস জানান, রোববার সিও বাজার এলাকায় রংপুর থেকে পঞ্চগড়গামী বিআরটিসি বাসের সঙ্গে দিনাজপুর থেকে রংপুরগামী বাসের মুখোমুখি সংঘর্ষে চার নারী ও দুই শিশুসহ আটজন নিহত হয়। এ ঘটনায় জেলা প্রশাসন অতিরিক্ত জেলা ম্যাজিস্ট্রেট মোন্নাফ রাবিবকে আহ্বায়ক করে তিন সদস্য বিশিষ্ট তদন্ত কমিটি গঠন করেন। কমিটিতে বিআরটিএ উপপরিচালক হিসেবে তাকে সদস্য হিসেবে রাখা হয়েছে। অপর সদস্য পুলিশের একজন কর্মকর্তা। 

তদন্ত কমিটির এই সদস্যা আরও বলেন, ‘তদন্ত কমিটির প্রধান অতিরিক্ত জেলা ম্যাজিস্ট্রেট জরুরী কাজে ঢাকায় অবস্থান করায় আজও তদন্ত শুরু করা যায়নি। উনি আসার পর তদন্ত শুরু হবে।’