• শুক্রবার, আগস্ট ২৩, ২০১৯
  • সর্বশেষ আপডেট : ১০:৫১ রাত

সাজা দিন, বারবার আসতে পারব না: খালেদা জিয়া

  • প্রকাশিত ০৫:০৫ সন্ধ্যা সেপ্টেম্বর ৫, ২০১৮
BNP chief Khaleda Zia
বিএনপি চেয়ারপারসন খালেদা জিয়া (ফাইল ছবি)। ছবি: ঢাকা ট্রিবিউন

যুক্ততর্কের শুনানি শেষ হলেই এ মামলাটি রায়ের পর্যায়ে যাবে।

পুরান ঢাকার নাজিমউদ্দিন রোডের পুরনো কারাগারের ভেতরে বিশেষ আদালতে বসিয়ে জিয়া দাতব্য ট্রাস্ট দুর্নীতির মামলা বিচারের ব্যবস্থা করায় অসন্তোষ প্রকাশ করেছেন বিএনপি চেয়ারপারসন খালেদা জিয়া।

আদালতে বিচারককে উদ্দেশ করে খালেদা জিয়া বলেন, “আমার শারীরিক অবস্থা ভালো না। আমার পা ফুলে গেছে। ডাক্তার বলেছে, পা ঝুলিয়ে রাখা যাবে না। এখানে আমি আদালতে বারবার আসতে পারবো না। আপনাদের যা মনে চায়, যতদিন ইচ্ছা সাজা দিয়ে দিন। ন্যায়বিচার বলে কিছু নাই। আমার প্রতি অবিচার করা হচ্ছে।” 

এদিকে খালেদা জিয়ার আইনজীবীরা কারাগারে স্থাপিত বিশেষ আদালতে উপস্থিত ছিলেন না। এ বিষয়ে খালেদা জিয়ার আইনজীবী সানাউলাহ মিয়া বলেন, “আদালত থেকে আমাদেরকে কোনও নোটিশ দেওয়া হয়নি। ওইখানে আদালত বসবে কিনা, আমরা এ বিষয়ে নিশ্চিত না।”

অন্যদিকে দুদকের আইনজীবী মোশারফ হোসেন কাজল আদালতকে বলেন, “মামলার দুই আসামি জিয়াউল ইসলাম মুন্না ও মনিরুল ইসলাম খানের পক্ষে যুক্তিতর্ক উপস্থাপনের মধ্যেই প্রায় ৯ মাস ধরে শুনানি বন্ধ রয়েছে। এই অবস্থায় পুরনো কেন্দ্রীয় কারাগারের এই স্থানে অস্থায়ী আদালত ঘোষণা করা হয়েছে। গতকাল এই সংক্রান্ত প্রজ্ঞাপন জারি করা হয়েছে। আসামি খালেদা জিয়ার আইনজীবীর কাছে প্রজ্ঞাপনের কপি পাঠানো হয়েছে। ব্যক্তিগতভাবেও তাদের ফোন করে জানিয়েছি।”

তবে খালেদা জিয়াসহ এই মামলার তিন আসামিকে এজলাসে হাজির করা হলেও, আসামিপক্ষের আইনজীবীরা কেউ না আসায় বিচারের শেষ পর্যায়ে থাকা মামলাটির শুনানি এদিন শুরু করা সম্ভব হয়নি।

পরবর্তীতে আগামী ১২ ও ১৩ সেপ্টেম্বর খালেদা জিয়ার বিরুদ্ধে জিয়া চ্যারিটেবল ট্রাস্ট দুর্নীতি মামলার শুনানির দিন নির্ধারণ করেছেন আদালত। বুধবার (৫ সেপ্টেম্বর) রাজধানীর নাজিমউদ্দিন রোডের পুরাতন কেন্দ্রীয় কারাগারে স্থাপিত অস্থায়ী আদালতে বিচারক আখতারুজ্জামান এ আদেশ দেন। যুক্ততর্কের শুনানি শেষ হলেই এ মামলাটি রায়ের পর্যায়ে যাবে।