• বুধবার, সেপ্টেম্বর ২৬, ২০১৮
  • সর্বশেষ আপডেট : ০১:২৩ রাত

নিজ এলাকায় অবাঞ্ছিত এমপি মনোরঞ্জন শীল

  • প্রকাশিত ০১:০১ দুপুর সেপ্টেম্বর ৬, ২০১৮
এমপি মনোরঞ্জন শীল
দিনাজপুর-১ আসনের সাংসদ মনোরঞ্জন শীল গোপালকে অবাঞ্ছিত ঘোষণা করেছে বীরগঞ্জ-কাহারোল আওয়ামী লীগ ঐক্য পরিষদ। ছবিঃ ফাইল ফটো।

অনিয়ম, দুর্নীতি এবং এলাকায় জামায়াতে ইসলামী প্রতিষ্ঠায় সহযোগিতা করার অভিযোগ এনে এই ঘোষণা দেওয়া হয়।

দিনাজপুর-১ আসনের সাংসদ মনোরঞ্জন শীল গোপালকে অবাঞ্ছিত ঘোষণা করেছে বীরগঞ্জ-কাহারোল আওয়ামী লীগ ঐক্য পরিষদ। গত বুধবার বিকালবেলা বীরগঞ্জ উপজেলা সদরের বিজয় সরণিতে আয়োজিত এক প্রতিবাদ সভায় অনিয়ম, দুর্নীতি এবং এলাকায় জামায়াতে ইসলামী প্রতিষ্ঠায় সহযোগিতা করার অভিযোগ এনে এই ঘোষণা দেওয়া হয়। 

১১টি ইউনিয়ন থেকে প্রায় ১১ হাজার নেতাকর্মী বিক্ষোভ প্রতিবাদ সভায় অংশ নেয়। সভায় সর্বসম্মতিক্রমে সাংসদ মনোরঞ্জন শীলকে দিনাজপুর-১ আসনের এলাকায় আনুষ্ঠানিকভাবে অবাঞ্ছিত ঘোষণা করা হয়। 

প্রতিবাদ সভা শুরু হওয়ার পূর্বে সাংসদ মনোরঞ্জন শীলের দুর্নীতির প্রতিবাদে বিশাল একটি ঝাড়ু মিছিল বীরগঞ্জ উপজেলার প্রধান প্রধান সড়ক প্রদক্ষিণ করে। মিছিলের এক পর্যায়ে বিক্ষুব্ধ নেতাকর্মীরা দিনাজপুর-ঠাকুরগাঁও সড়ক অবরোধ করলে রাস্তার উভয় পাশে তীব্র যানজটের সৃষ্টি হয়। 

প্রতিবাদ সভায় সভাপতিত্ব করেন বীরগঞ্জ-কাহারোল আওয়ামী লীগ ঐক্য পরিষদের সভাপতি হামিদুল ইসলাম। অন্যান্যদের মধ্যে বক্তব্য রাখেন বীরগঞ্জ উপজেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি জাকারিয়া জাকা, সাবেক সাংসদ ও উপজেলা চেয়ারম্যান আমিনুল ইসলাম, সাবেক সাংসদ আব্দুল মালেক সরকার, কেন্দ্রীয় ছাত্রলীগের সাবেক সহসভাপতি আবু হোসাইন বিপুসহ আওয়ামী লীগের স্থানীয় নেতৃবৃন্দ। 

উল্লেখ্য, গত মঙ্গলবারেও অনিয়ম-দুর্নীতির অভিযোগে বরগুনা-১ আসনের সাংসদ ধীরেন্দ্র দেবনাথ শম্ভুকে অবাঞ্ছিত ঘোষণা করেন তার নিজ দল আওয়ামী লীগের বিক্ষুব্ধ নেতাকর্মীরা। বরগুনা প্রেসক্লাবে আয়োজিত এক সংবাদ সম্মেলনে জেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি ও সাংসদ শম্ভু ও তার ছেলের বিরুদ্ধে নানা অভিযোগ তুলে ধরে তাদের দুইজনকেই বরগুনা-১ আসনের এলাকায় অবাঞ্ছিত ঘোষণা করেন আওয়ামী লীগের স্থানীয় নেতাকর্মীরা।