• বুধবার, নভেম্বর ১৩, ২০১৯
  • সর্বশেষ আপডেট : ০৭:৩৫ রাত

পুলিশ ভ্যান থেকে নামিয়ে গণপিটুনিতে নিহত আসামী

  • প্রকাশিত ১১:৫১ রাত সেপ্টেম্বর ১৫, ২০১৮
ইউপি সদস্য জলিল গাইন
নিহত ইউপি সদস্য জলিল গাইন। ছবি: ঢাকা ট্রিবিউন

শনিবার রাত ৯টার দিকে কৃষ্ণনগর বাজারে ইউনিয়ন যুবলীগ অফিসের সামনে এ ঘটনা ঘটে।

সাতক্ষীরার কালিগঞ্জের কৃষ্ণনগর ইউপি চেয়ারম্যান ও জেলা জাতীয় পার্টির সহ-সাংগঠনিক সম্পাদক কেএম মোশাররফ হোসেন হত্যা মামলার প্রধান আসামী ইউপি সদস্য জলিল গাইনকে পুলিশের কাছ থেকে ছিনিয়ে নেয় এলাকাবাসী। বিক্ষুব্ধ গ্রামবাসীর গণপিটুনিতে নিহত হয় আসামী।  

শনিবার রাত ৯টার দিকে কৃষ্ণনগর বাজারে ইউনিয়ন যুবলীগ অফিসের সামনে এ ঘটনা ঘটে।

কালিগঞ্জ থানার অফিসার ইনচার্জ হাসান হাফিজুর রহমান জানান, চেয়ারম্যান মোশাররফ হত্যাকান্ডের পর জলিল গাইন আত্মগোপন করে। শুক্রবার গাজীপুরের কালিয়াকৈর উপজেলার রাখালিয়াচালা এলাকার সরকার মার্কেট থেকে তাকে আটক করে পুলিশ। পরে তাকে সাতক্ষীরার কালিগঞ্জ থানা পুলিশের কাছে হস্তান্তর করা হয়। 

ওসি আরও জানান, তাকে কালিগঞ্জ থানায় এনে জিজ্ঞাসাবাদ শেষে অস্ত্র উদ্ধারের জন্য কৃষ্ণনগর বাজারে ইউনিয়ন যুবলীগ অফিসের সামনে নিয়ে যাওয়া হয়। সেখানে পুলিশ ভ্যান থেকে নামানোর সাথে সাথে বিক্ষুব্ধ গ্রামবাসী জলিলকে ছিনিয়ে নেয়। পরে জনতা গণপিটুনি দিয়ে তাকে হত্যা করে। 

প্রসঙ্গ,  ৮ সেপ্টেম্বর রাত পৌনে ১১ টার দিকে কৃষ্ণনগর ইউপি চেয়ারম্যান কেএম মোশাররফ হোসেনকে কুপিয়ে ও গুলি করে হত্যা করে দুর্বৃত্তরা। এঘটনায় চেয়ারম্যানের মেয়ে সাফিয়া পারভীন বাদী হয়ে ৩নং ওয়ার্ডের মেম্বর ও কৃষ্ণনগর ইউনিয়ন শ্রমিক লীগের সভাপতি জলিল গাইনকে প্রধান আসামি করে ১৯ জনের নাম উল্লেখ ও অজ্ঞাতনামা ২০ জনকে আসামী করে থানায় হত্যা মামলা দায়ের করেন।