• রবিবার, এপ্রিল ০৫, ২০২০
  • সর্বশেষ আপডেট : ১০:২৮ রাত

ডাকসু’র আলোচনা সভায় ছাত্রদলের নিরাপত্তা চায় সাদা দল

  • প্রকাশিত ১২:৪৭ রাত সেপ্টেম্বর ১৬, ২০১৮
ডাকসু
ডাকসু ভবন। ফাইল ছবি

আজ (১৬ সেপ্টেম্বর) ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় কেন্দ্রীয় ছাত্র সংসদ (ডাকসু) নির্বাচন নিয়ে ক্যাম্পাসের ছাত্র সংগঠনগুলোর সাথে আলোচনায় বসতে যাচ্ছে বিশ্ববিদ্যালয় প্রশাসন।

ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় কেন্দ্রীয় ছাত্র সংসদ (ডাকসু) নির্বাচন নিয়ে ক্যাম্পাসের ছাত্র সংগঠনগুলোর সাথে আলোচনায় বসতে যাচ্ছে বিশ্ববিদ্যালয় প্রশাসন। 

আজ (১৬ সেপ্টেম্বর) বেলা সাড়ে ১১টায় উপাচার্য কার্যালয়ে ‘ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় পরিবেশ পরিষদের’ এই সভা অনুষ্ঠিত হবে। 

তবে এ সভায় ছাত্রদল নেতাদের নিরাপত্তা প্রসঙ্গে উদ্বেগ প্রকাশ করেছেন বিএনপিপন্থী শিক্ষকদের সংগঠন সাদা দল। ক্যাম্পাসে অন্যান্য দলের মতো সহাবস্থান না থাকায় তাদের উপর ক্ষমতাসীন আওয়ামী লীগের ছাত্র সংগঠন ছাত্রলীগের হামলার শিকার হতে পারে বলেও সন্দেহ প্রকাশ করেছেন সাদা দলের শিক্ষকবৃন্দ।  

এই মর্মে, গতকাল শনিবার (১৫ সেপ্টেম্বর) ঢাবি উপাচার্য অধ্যাপক মো. আখতারুজ্জামানের সঙ্গে সাক্ষাৎ করেছেন সাদা দলের নেতৃস্থানীয় শিক্ষকবৃন্দ। ঢাবি সাদা দলের আহ্বায়ক অধ্যাপক ড. এবিএম ওবায়দুল ইসলাম, যুগ্ম আহ্বায়ক অধ্যাপক ড. লুৎফর রহমান ও অধ্যাপক ড. মোর্শেদ হাসান খান সে সময় উপস্থিত ছিলেন।

সাদা দলের অধ্যাপক ড. মোর্শেদ হাসান খান ঢাকা ট্রিবিউনকে বলেন, ‘আগামীকাল বিশ্ববিদ্যালয়ের পরিবেশ পরিষদের সভায় ছাত্রলীগ, ছাত্রদলসহ অন্য ছাত্রসংগঠনগুলোকেও আমন্ত্রণ জানানো হয়েছে। কিন্তু সহাবস্থান না থাকায় ছাত্রদল ক্যাম্পাসে অবস্থান করতে পারে না। পুরো বিশ্ববিদ্যালয় ক্যাম্পাস এবং হলগুলোতে ক্ষমতাসীন ছাত্রলীগের আধিপত্য। এ অবস্থায় কালকের সভায় ছাত্রদলের প্রতিনিরা অংশ নিলে তাদের নিরাপত্তা কী হবে তা পরিষ্কার নয়। তাদের নিরাপত্তা দিয়ে আনা হবে কিনা সে বিষয়েও স্পষ্ট হওয়া দরকার।’

তিনি আরও বলেন, ‘গণমাধ্যমে খবর বেরিয়েছে কালকের সভায় ছাত্রদলের কেউ অংশ নিলে আক্রমণ বা হামলা করতে পারে ছাত্রলীগ। এ অবস্থায় বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষক হিসেবে আমরা উদ্বিগ্ন। যে কারণে বিশ্ববিদ্যালয়ের উপাচার্যকে আমাদের উদ্বেগের বিষয়টি জানিয়েছি।’

উল্লেখ্য যে, চলতি বছরের ১৭ জানুয়ারি ঢাবি প্রশাসনকে ছয় মাসের মধ্যে ডাকসু নির্বাচনের পদক্ষেপ নিতে আদেশ দেয় উচ্চ আদালত। নির্দিষ্ট সময়ে নির্বাচনের পদক্ষেপ না নেওয়ায় আদালত অবমাননার দায়ে বিশ্ববিদ্যালয়ের ভাইস চ্যান্সেলরসহ (ভিসি) তিনজনের বিরুদ্ধে আদালত অবমাননার মামলা করা হয় গত সপ্তাহে। তারই প্রেক্ষিতে ডাকসু নির্বাচনে উদ্যোগ নিয়েছে বিশ্ববিদ্যালয় প্রশাসন।