• বুধবার, নভেম্বর ২০, ২০১৯
  • সর্বশেষ আপডেট : ১১:০৯ রাত

“ছাত্রদের কি দু’একটা বেতের বাড়িও দিতে পারি না?”

  • প্রকাশিত ০৭:০৭ রাত সেপ্টেম্বর ১৭, ২০১৮
লক্ষ্মীপুর ফুল মাহমুদ উচ্চ বিদ্যালয়
লক্ষ্মীপুর ফুল মাহমুদ উচ্চ বিদ্যালয়। ছবি: ঢাকা ট্রিবিউন

অভিযুক্ত শিক্ষক রফিকুল জানান, “শিক্ষার্থীরা পড়া না পাওয়ায় তাদের দু‘একটি করে বেত্রাঘাত করা হয়েছে। এতে কেউ অসুস্থ হলে আমার কিছু করার নেই। শিক্ষক হিসেবে এটা কি আমি পারি না?”

জামালপুরের ইসলামপুর শিক্ষকের বেত্রাঘাতে ১০ ছাত্র গুরুতর আহত হয়েছে বলে অভিযোগ উঠেছে। এ ঘটনায় আজ সোমবার ১০ম শ্রেণীর ছাত্ররা ক্লাস বর্জন করেছে।

এলাকাবাসি জানায়, গত রোববার জেলার ইসলামপুর উপজেলার চরগোয়ালিনী ইউনিয়নের লক্ষ্মীপুর ফুল মাহমুদ উচ্চ বিদ্যালয়ে ঘটনা ঘটে।

বিদ্যালয়ের ম্যানেজিং কমিটি সভাপতি জুলফিকার রহমান সাঈদ জানান, ওইদিন গণিতের শিক্ষক আব্দুর রহিম ১০ম শ্রেণীর বিজ্ঞান পড়াতে গিয়ে শিক্ষার্থীদের বেধড়ক মারপিট করে। এতে রফিকুল ইসলামসহ আরও ১০ শিক্ষার্থী গুরুতর আহত হয়।

তার প্রতিবাদে সোমবার স্কুলের ১০ম শ্রেণীর শিক্ষার্থীরা স্কুল বর্জন করেছে।

এলাকাবাসি জানায়,  প্রধান শিক্ষক আলতাফুর রহমান ও শরীর চর্চা শিক্ষক আলমগীর হোসাইন সোমবার স্কুলে অনুপস্থিত রয়েছেন।

অভিযুক্ত শিক্ষক রফিকুল জানান, “শিক্ষার্থীরা পড়া না পাওয়ায় তাদের দু‘একটি করে বেত্রাঘাত করা হয়েছে। এতে কেউ অসুস্থ হলে আমার কিছু করার নেই। শিক্ষক হিসেবে এটা কি আমি পারি না?”

এ বিষয়ে ইসলামপুর উপজেলা মাধ্যমিক শিক্ষা কর্মকর্তা গোলাম মোস্তফার সাথে যোগাযোগ করা হলে তিনি বিষয়টি মর্মাহত বলে জানান।

মোবাইল ফোনে উপজেলা নির্বাহী অফিসার মোহাম্মদ মিজানুর রহমানের সাথে যোগাযোগ করা হলে তিনি বলেন, “বিষয়টির খোঁজ খবর নিয়ে ব্যবস্থা নেয়া হবে।”