• মঙ্গলবার, অক্টোবর ২২, ২০১৯
  • সর্বশেষ আপডেট : ০৮:২০ রাত

শরীয়তপুরে পুলিশের ‘মারধরে’ কলেজছাত্র নিহত

  • প্রকাশিত ০১:৪২ দুপুর সেপ্টেম্বর ২৮, ২০১৮
নিহত পাভেল
নিহত পাভেল। ছবি : সংগৃহীত

প্রত্যক্ষদর্শীরা পাভেলকে ধরাধরি করে একটি ফার্মেসিতে নিয়ে যান। চিকিৎসা ব্যবস্থা না থাকায় তাকে পুলিশের গাড়িতে করেই নেওয়া হয় জাজিরা উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে। সেখানে কর্তব্যরত চিকিৎসক পাভেলকে মৃত ঘোষণা করেন।


শরীয়তপুরের জাজিরা উপজেলায় পুলিশের নির্যাতনে এক কলেজছাত্রের নিহত হওয়ার অভিযোগ পাওয়া গেছে। গতকাল বৃহস্পতিবার রাত ৮টার দিকে  উপজেলার বিকে নগর আনন্দ বাজার এলাকায় এ ঘটনা ঘটে। 

নিহত ওই ছাত্রের নাম রোকনুজ্জামান পাভেল। সে বিকে নগর বঙ্গবন্ধু কলেজ থেকে ২০১৮ সালের এইচএসসি পাস করেছে। 

স্থানীয় সূত্রে জানা যায়, বৃহস্পতিবার সন্ধ্যার পরে পিকআপ নিয়ে টহলে বের হন জাজিরা থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মোহাম্মদ বেলায়েত হোসাইন। এসময় তার সঙ্গে ছিলেন অপর এক পুলিশ সদস্য এবং গাড়িচালক। বিকে নগর আনন্দ বাজারের উত্তর মাথায় পৌঁছানোর পর রাস্তার পাশে মোটরসাইকেলে থাকা দুই কিশোরকে দেখে গাড়ি থামান ওসি বেলায়েত। ওই কিশোরদের দেহ তল্লাশী করতে চায় পুলিশ। এতে আপত্তি জানায় পাভেল। পাভেলের আপত্তিতে নাখোশ হয়ে চড় ও কিল-ঘুষি মারেন পুলিশ সদস্যরা। এতে পাভেল মাটিতে লুটিয়ে পড়ে। 

পরে প্রত্যক্ষদর্শীরা পাভেলকে ধরাধরি করে একটি ফার্মেসিতে নিয়ে যান। চিকিৎসা ব্যবস্থা না থাকায় তাকে পুলিশের গাড়িতে করেই নেওয়া হয় জাজিরা উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে। সেখানে কর্তব্যরত চিকিৎসক পাভেলকে মৃত ঘোষণা করেন।

প্রত্যক্ষদর্শী ও পাভেলের সঙ্গে থাকা শান্ত, সোহাগ ও শাহিন জানান, মোটরসাইকেলে করে তারা বৃহস্পতিবার সন্ধ্যার পরে একটা বিয়ের অনুষ্ঠানে যাচ্ছিল। পথে তারা রাস্তার পাশে মোটরসাইকেল থামিয়ে এক বন্ধুর অপেক্ষায় করছিল। এমন সময় পুলিশের একটি গাড়ি এসে তাদের দেহ তল্লাশী করতে থাকে। এক পর্যায়ে তল্লাশী করতে চাইলে পাভেল অন্ধকারে দেহ তল্লাশীতে আপত্তি জানায়। তথন পুলিশের সদস্যরা চড় ও কিল-ঘুষি মারতে থাকলে সে মাটিতে লুটিয়ে পড়ে। 

শরীয়তপুরের পুলিশ সুপার (এসপি) আবদুল মোমেন বলেন, ‘টহলরত পুলিশ পাভেলকে চেক করতে গেলে সে পুলিশের সাথে তর্কে জড়ায়। এরপর সে অপ্রত্যাশীভাবে অসুস্থ্য হয়ে পরে। সে আগে থেকেই মৃগী রোগে আক্রান্ত ছিল। এ বিষয়ে একটি অপমৃত্যু মামলা হয়েছে। তারপরেও যদি পুলিশের কোনো সংশ্লিষ্টতা বা ভুলত্রুটি হয়ে থাকে তাহলে তদন্ত সাপেক্ষে আমরা ব্যবস্থা গ্রহণ করবো।’