• সোমবার, মার্চ ৩০, ২০২০
  • সর্বশেষ আপডেট : ০১:২৪ দুপুর

ঢাবি ভর্তি পরীক্ষায় জালিয়াতি, আটক পাঁচ

  • প্রকাশিত ০৫:১০ সন্ধ্যা সেপ্টেম্বর ২৮, ২০১৮
জব্দকৃত ডিজিটাল ডিভাইস
জব্দকৃত ডিজিটাল ডিভাইস। ছবি: ঢাকা ট্রিবিউন

ভর্তি পরীক্ষায় জালিয়াতির অভিযোগে পাঁচ জনকে আটক করা হয়েছে।

শুক্রবার (২৮ সেপ্টেম্বর) সম্পন্ন হয়েছে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ে (ঢাবি) ২০১৮-২০১৯ শিক্ষাবর্ষে ‘ক’ ইউনিটের প্রথম বর্ষের (স্নাতক সম্মান) ভর্তি পরীক্ষা। ভর্তি পরীক্ষায় জালিয়াতির অভিযোগে ৫ জনকে আটক করা হয়েছে। এদের মধ্যে চারজন শিক্ষার্থী, একজন অভিভাবক।  

আটক দুজনের পরিচয় পাওয়া গেছে। তারা হলেন ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষার্থী সাদমান ও ভর্তি পরীক্ষার্থী হৃদয় জামান। ডিভাইস এবং শরীর চেক করার মাধ্যমে কর্তব্যরত শিক্ষকরা এই দুজনকে আটক করেন বলে জানা গেছে।

এ বছর ‘ক’ ইউনিটে ১ হাজার সাতশ ৫০টি আসনের জন্য ভর্তিচ্ছু আবেদনকারীর সংখ্যা ছিল ৮১ হাজার ৯৬ জন। পরীক্ষা সুষ্ঠুভাবে সম্পন্ন করার লক্ষ্যে পরীক্ষার হলে মোবাইল ফোন বা টেলিযোগাযোগ করা যায় এরূপ কোনও ইলেক্ট্রনিক ডিভাইস সম্পূর্ণ নিষিদ্ধ করে কর্তৃপক্ষ। পরীক্ষা চলাকালে দায়িত্ব পালন করেছে ভ্রাম্যমান আদালত।

সংশ্লিষ্ট সূত্রে জানা যায়, বিশ্ববিদ্যালয় ক্যাম্পাস ও ক্যাম্পাসের বাইরের মোট ৮৪টি কেন্দ্রে সকাল ১০টা থেকে সাড়ে ১১টা পর্যন্ত পরীক্ষা অনুষ্ঠিত হয়। 

ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের বাইরের পরীক্ষা কেন্দ্রগুলো ছিল, হাজারীবাগস্থ লেদার ইঞ্জিনিয়ারিং অ্যান্ড টেকনোলজি ইনস্টিটিউট, নীলক্ষেত হাইস্কুল, গার্হস্থ্য অর্থনীতি কলেজ, বাংলাদেশ প্রকৌশল বিশ্ববিদ্যালয় স্কুল অ্যান্ড কলেজ, বাংলাদেশ প্রকৌশল বিশ্ববিদ্যালয় গার্লস স্কুল অ্যান্ড কলেজ, বেগম বদরুন্নেসা সরকারি মহিলা কলেজ, ড. শহীদুল্লাহ কলেজ, ইডেন মহিলা কলেজ, আজিমপুর গভর্নমেন্ট গার্লস স্কুল অ্যান্ড কলেজ, সরকারি টিচার্স ট্রেনিং কলেজ, গভর্নমেন্ট ল্যাবরেটরি হাইস্কুল, ঢাকা সিটি কলেজ, আইডিয়াল কলেজ, নিউ মডেল ডিগ্রি কলেজ, লালমাটিয়া মহিলা কলেজ, মোহাম্মদপুর কেন্দ্রীয় কলেজ, মোহাম্মদপুর মডেল স্কুল অ্যান্ড কলেজ, সরকারি বিজ্ঞান কলেজ, উইলস লিটল ফ্লাওয়ার স্কুল অ্যান্ড কলেজ, সিদ্ধেশ্বরী গার্লস কলেজ, নটরডেম কলেজ, মতিঝিল সরকারি বালক উচ্চবিদ্যালয়, শেখ বোরহানুদ্দীন পোস্ট গ্রাজুয়েট কলেজ এবং ঢাকা মহানগর মহিলা কলেজ।