• মঙ্গলবার, মার্চ ৩১, ২০২০
  • সর্বশেষ আপডেট : ০৭:২৬ রাত

'খালেদা জিয়ার বাম হাত বেঁকে গেছে, নাড়াতে পারেন না বাম কাঁধ'

  • প্রকাশিত ০৬:৩৭ সন্ধ্যা অক্টোবর ৮, ২০১৮
বিএনপি চেয়ারপারসন খালেদা জিয়া
বিএনপি চেয়ারপারসন খালেদা জিয়া। ফাইল ছবি

ডা. জলিল বলেন, ‘৩০ বছর ধরে খালেদা জিয়া এই রোগে ভুগছেন। রোগটির নাম রিউমাটো আর্থ্রাইটিস। এই রোগ কন্ট্রোলে না রাখার কারণে তার বিভিন্ন জটিলতা সৃষ্টি হয়েছে।' 

বিএনপি চেয়ারপারসন খালেদা জিয়ার বাম হাত বেঁকে গেছে এবং বাম কাঁধ নাড়াতে পারেন না বলে জানিয়েছেন তার চিকিৎসার জন্য গঠিত মেডিকেল বোর্ডের প্রধান ড. এম এ জলিল। রিউমাটো আর্থ্রাইটিস রোগের কারণেই এমনটি হয়েছে বলে জানিয়েছেন তিনি। 

আজ সোমবার দুপুরে বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিব মেডিকেল বিশ্ববিদ্যালয়ে (বিএসএমএমইউ) আয়োজিত এক প্রেস ব্রিফিংয়ে এসব তথ্য জানান এম এ  জলিল।

ডা. জলিল বলেন, ‘৩০ বছর ধরে খালেদা জিয়া এই রোগে ভুগছেন। রোগটির নাম রিউমাটো আর্থ্রাইটিস। এই রোগ কন্ট্রোলে না রাখার কারণে তার বিভিন্ন জটিলতা সৃষ্টি হয়েছে। তার বাম হাত বেঁকে গেছে, বাম কাঁধ নাড়াতে পারেন না, হাত ঝিম ঝিম করে। তার ঘাড়ে ও কোমরে ব্যথা আছে। তার বাম হিপজয়েন্টে আর্থ্রাইটিস আছে। তার দুই হাঁটু আগে থেকে রিপ্লেস করা। সেখানে কিছুদিন আগে ফুলে গিয়েছিল। ওষুধ দিয়ে তা ঠিক করা হয়েছে।’

মেডিকেল বোর্ডের এই চিকিৎসক আরও বলেন, ‘উনি বিশ বছর ধরে ডায়াবেটিসে ভুগছেন। তাকে ডায়াবেটিস কন্ট্রোলের জন্য ইনসুলিন দেওয়া হয়েছিল। কিন্তু তিনি তা নেননি। তার ডায়াবেটিসের কী অবস্থা সেটি আমাদের দেখতে হবে। মাঝখানে তার সুগার কমে হাইপো-ডায়াবেটিস হয়ে গিয়েছিল। তিনি ব্লাডপ্রেসারের ওষুধ খাচ্ছেন। মাঝখানে কিছু দিন আগে তার জ্বর হয়েছিল। সেটা এখন নাই। তার শরীরের সোডিয়াম কমে গিয়েছিল। ওষুধ দিয়ে সেটা নিয়ন্ত্রণে আনা হয়েছে।’

এ বিষয়ে মেডিকেল বোর্ডের আরেক সদস্য অধ্যাপক ডা. সৈয়দ আতিকুল হক জানান, খালেদা জিয়া আগামী দুই সপ্তাহে প্রাথমিক কিছু পরীক্ষা করা হবে। কিছু পরীক্ষা এরই মধ্যে করা হয়েছে। সেগুলোর রিপোর্টের জন্য অপেক্ষা করা হচ্ছে। 

ডা. আতিকুল আরো জানান, খালেদা জিয়ার ডায়াবেটিস রয়েছে। এটি নিয়ন্ত্রণ করা না গেলে দুই সপ্তাহ পর তার চিকিৎসা শুরু করা সম্ভব হবে না।