• রবিবার, ডিসেম্বর ০৮, ২০১৯
  • সর্বশেষ আপডেট : ০৯:০৩ রাত

বঙ্গবন্ধুর 'অসমাপ্ত আত্মজীবনী' যুক্ত হচ্ছে শাবির বাংলা বিভাগের সিলেবাসে

  • প্রকাশিত ১২:০২ দুপুর নভেম্বর ৩, ২০১৮
অসমাপ্ত আত্মজীবনী
শাহজালাল বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়ের (শাবিপ্রবি) বাংলা বিভাগে জাতির জনক বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের ‘অসমাপ্ত আত্মজীবনী’ পাঠ্য হিসেবে চালু করার সিদ্ধান্ত গ্রহণ করা হয়েছে। ছবি: সৌজন্যে।

বৃহস্পতিবার বিভাগের সিলেবাস প্রণয়ন কমিটির সভায় ‘অসমাপ্ত আত্মজীবনী’ পাঠ্য করার সিদ্ধান্ত গ্রহণ করা হয়

শাহজালাল বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়ের (শাবিপ্রবি) বাংলা বিভাগে জাতির জনক বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের ‘অসমাপ্ত আত্মজীবনী’ পাঠ্য হিসেবে চালু করার সিদ্ধান্ত গ্রহণ করা হয়েছে। বৃহস্পতিবার বিভাগের সিলেবাস প্রণয়ন কমিটির সভায় ‘অসমাপ্ত আত্মজীবনী’ পাঠ্য করার সিদ্ধান্ত গ্রহণ করা হয়।

বাংলা বিভাগের ‘আত্মজৈবনিক রচনা’ শিরোনামে ২২৬ নম্বর কোর্সের অংশ হিসেবে বঙ্গবন্ধুর লেখা এই আত্মজীবনী পড়ানো হবে বলে জানা গেছে। তবে সিদ্ধান্তটি চূড়ান্ত করার আগে একাডেমিক কাউন্সিলের সভা থেকে তা পাস করাতে হবে বলে জানিয়েছেন বিভাগীয় প্রধান অধ্যাপক আশরাফুল করিম।

তিনি বলেন, "দেশের মানুষের কাছে বঙ্গবন্ধুকে জানার এবং বোঝার শেষ নেই। তরুণ প্রজন্মের কাছে বঙ্গবন্ধুর সংগ্রামী জীবনের ইতিহাস তুলে ধরলে তারা দেশপ্রেমে আরও উদ্বুদ্ধ হবে। তাছাড়া এটা না করলে বরং বাংলাদেশের ইতিহাস অপূর্ণ থেকে যায়। এসব বিষয় মাথায় নিয়ে বিশ্ববিদ্যালয় পর্যায়ে আমরাই প্রথম পাঠ্য হিসেবে বঙ্গবন্ধুর আত্মজীবনী গ্রহণ করছি। বিভাগের শিক্ষকদের সর্বসম্মতিক্রমে এ সিদ্ধান্ত নেয়া হয়েছে।"

বঙ্গবন্ধুর পাশাপাশি বাংলা বিভাগের তিন ক্রেডিটের এই কোর্সে রবীন্দ্রনাথ ঠাকুর, মীর মোশাররফ হোসেন ও রাজসুন্দরী দেবীর আত্মজীবনী পাঠ্য হিসেবে পড়ানো হবে বলেও জানিয়েছেন অধ্যাপক আশরাফুল করিম।  

উল্লেখ্য, ২০১৮-১৯ শিক্ষাবর্ষ হতে বাংলা বিভাগের দ্বিতীয় বর্ষ দ্বিতীয় সেমিস্টারের শিক্ষার্থীরা এই কোর্সটি পড়তে পারবে।

বিষয়টি নিয়ে শিক্ষার্থীদের মধ্যেও ব্যাপক আগ্রহ দেখা গেছে। যিনি না থাকলে বাংলাদেশ রাষ্ট্রের জন্ম হত না, তার আত্মজীবনী পাঠ্য হিসেবে যুক্ত করার সিদ্ধান্ত শুধু শাবিতে নয়, দেশের সব বিশ্ববিদ্যালয়ে তা পড়ানো উচিৎ বলে মন্তব্য করেছেন বেশ কয়েকজন শিক্ষার্থী।