• বৃহস্পতিবার, ডিসেম্বর ১৩, ২০১৮
  • সর্বশেষ আপডেট : ১১:০২ রাত

আসাদুজ্জামান নূর: ইসলামে নারী নেতৃত্ব মোটেই হারাম নয়

  • প্রকাশিত ০৭:২৯ রাত ডিসেম্বর ১, ২০১৮
আসাদুজ্জামান নূর
শনিবার (১ ডিসেম্বর) নীলফামারী জেলা শিল্পকলা মিলনায়নে ধর্ম-জ্ঞান বিকাশের অন্তরায় সন্ত্রাস ও জঙ্গিবাদ দমনে জননেত্রী শেখ হাসিনার অনুপ্রেরনায় আলেম সমাজের করনীয় শীর্ষক এক মতবিনিময় সভায় প্রধান অতিথির বক্তব্য রাখছেন সংস্কৃতি মন্ত্রী আসাদুজ্জামান নূর। ছবি: ঢাকা ট্রিবিউন।

শনিবার (১ ডিসেম্বর) নীলফামারী জেলা শিল্পকলা মিলনায়নে ধর্ম-জ্ঞান বিকাশের অন্তরায় সন্ত্রাস ও জঙ্গিবাদ দমনে জননেত্রী শেখ হাসিনার অনুপ্রেরনায় আলেম সমাজের করনীয় শীর্ষক এক মতবিনিময় সভায় তিনি এই কথা বলেন

ইসলামে নারী নেতৃত্ব মোটেই হারাম নয় বলে মন্তব্য করেছেন সংস্কৃতিমন্ত্রী আসাদুজ্জামান নূর। শনিবার (১ ডিসেম্বর) নীলফামারী জেলা শিল্পকলা মিলনায়নে ধর্ম-জ্ঞান বিকাশের অন্তরায় সন্ত্রাস ও জঙ্গিবাদ দমনে জননেত্রী শেখ হাসিনার অনুপ্রেরনায় আলেম সমাজের করনীয় শীর্ষক এক মতবিনিময় সভায় প্রধান অতিথির বক্তব্যে এসব কথা বলেন তিনি।

তিনি বলেন, "আলেম সমাজের এক শ্রেনীর নেতারা বলেন, নারী নেতৃত্ব হারাম। আপনারা ইসলামের দৃষ্টিতে বলেন, কোথায় এটা লেখা আছে যে নারী নেতৃত্ব হারাম? ইসলামের দৃষ্টিতে নারী নেতৃত্ব হারাম নয়। কারণ রাসুলুল্লাহ'র (সঃ) আমলে নারীরা ঘোড়ার পিঠে উঠে যুদ্ধ করেছিল। নারী নেতৃত্ব হারাম, এই হাদিস তাদের তৈরী। এটাই মোটেই সঠিক নয়।"

এসময় তিনি বিভ্রান্তি ছড়ানো নিয়ে জামায়েতের দিকে ইঙ্গিত করে বলেন, "দাঁড়িপাল্লায় ভোট দিলে বেহেশত পাওয়া যায়, এবারতো দাঁড়িপাল্লা নেই তাহলে কী ধানের শীষে ভোট দিয়ে বেহেশত পাওয়া যাবে? দেলোয়ার হোসেইন সাইদীকে চাঁদে দেখিয়ে জামায়াত সাধারণ মানুষের মাঝে বিভ্রান্তি ছড়িয়ে ছিল। অথচ মহানবীকে (সঃ) কোনদিন চাঁদে দেখা গেলনা। এরা কি আসলে মুসলমান?"

প্রধান অতিথির বক্তব্যে সংস্কৃতিমন্ত্রী আওয়ামী লীগ ইসলাম প্রসারে সব সময় সচেষ্ট উল্লেখ করে বলেন, "তাদের (৪ দলীয় জোট) শাসন আমলে তারা (জামায়াত) ধর্মমন্ত্রানালয়ের মন্ত্রীত্ব কেউ নেন নাই। কিন্ত তারা কৃষিমন্ত্রী, সমাজকল্যানমন্ত্রী এসব মন্ত্রনালয়ের পদ বা দায়িত্ব নিয়েছিলেন। কারণ তাদের আসল উদ্দেশ্য মোটেই ইসলাম প্রচার ছিলনা। আর আজ দেশে পাঁচশত ৬০টি মডেল মসজিদ প্রতিষ্ঠা করা হচ্ছে। এটি পৃথিবীর ইতিহাসে এই প্রথম। বর্তমানে কওমী মাদ্রসার শিক্ষার্থীরা উচ্চ শিক্ষার সুযোগ পাচ্ছে।"

জাতির জনক বঙ্গবন্ধু শেখ মজিবুর রহমান ইসলামিক ফাউন্ডেশন প্রতিষ্ঠা করেছেন উল্লেখ করে আসাদুজ্জামান নূর আরও বলেন, "বর্তমান সরকার টুঙ্গির মাঠে তাবলীগ জামায়তের জায়গা করে দিয়েছে। ইমামদের প্রশিক্ষনের ব্যবস্থা করে দিয়েছে। ইসলামিক ফাউন্ডেশনের মসজিদ ভিত্তিক পাঠাগারের শিক্ষকদের বেতন ভাতা বৃদ্ধি করা হয়েছে।"