• বৃহস্পতিবার, ডিসেম্বর ১৩, ২০১৮
  • সর্বশেষ আপডেট : ১০:৫৪ রাত

ইসি: সারাদেশে ৭৮৬ মনোনয়নপত্র বাতিল, ৫ ডিসেম্বরের মধ্যে আপিল

  • প্রকাশিত ১১:১৭ রাত ডিসেম্বর ২, ২০১৮
নির্বাচন কমিশন

যাদের মনোনয়নপত্র বাতিল করা হয়েছে তারা আগামী ৫ ডিসেম্বরের মধ্যে নির্বাচন কমিশনে আপিল করতে পারবেন

একাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনে ৩০০ সংসদীয় আসনে প্রতিদ্বন্দ্বিতা করার জন্য জমা দেয়া ৩০৬৫ মনোনয়নপত্রের মধ্যে ৭৮৬টি বাতিল করেছেন রিটার্নিং কর্মকর্তারা।

রবিবার যাচাই বাছাই শেষে এসব মনোনয়নপত্র বাতিল করা হয়।

নির্বাচন কমিশন সচিবালয় সূত্র অনুযায়ী, সারাদেশের ৬৬ জন রিটার্নিং কর্মকর্তা যাচাই বাছাই শেষে ২ হাজার ২৭৯টি মনোনয়নপত্র বৈধ এবং ৭৮৬টি মনোনয়নপত্র অবৈধ ঘোষণা করেন।

যাদের মনোনয়নপত্র বাতিল করা হয়েছে তারা আগামী ৫ ডিসেম্বরের মধ্যে নির্বাচন কমিশনে আবেদন করতে পারবেন।

ইসির যুগ্ম সচিব ফরহাদ আহমেদ খান বলেন, ‘রিটার্নিং কর্মকর্তাদের সিদ্ধান্তের বিরুদ্ধে নির্বাচন কমিশনে চাইলে যে কেউ আপিল করতে পারবেন। তবে তা যাচাই বাছাই শেষে তিন দিনের মধ্যে করতে হবে।’

তিনি জানান, আগামী ৬-৮ ডিসেম্বর আপিলের ওপর শুনানি অনুষ্ঠিত হবে।

নির্বাচন কমিশন ঘোষিত পুনঃতফসিল অনুযায়ী আগামী ৩০ ডিসেম্বর একাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনের ভোট অনুষ্ঠিত হবে। ৯ ডিসেম্বরের মধ্যে মনোনয়নপত্র প্রত্যাহার করা যাবে। ১০ ডিসেম্বর প্রতীক বরাদ্দ দেয়া হবে।

গত ৩০ নভেম্বর মনোনয়নপত্র দাখিলের সময় শেষ হয়। নির্ধারিত সময়ের মধ্যে ৩০৬৫ জন প্রার্থী মনোনয়নপত্র দাখিল করেন। এর মধ্যে ২৬৪ আসনে আওয়ামী লীগের সম্ভাব্য ২৮১ প্রার্থী মনোনয়নপত্র দাখিল করেন। অন্যদিকে ২৯৫ আসনে বিএনপির ৬৯৬ জন এবং ২১০ আসনে জাতীয় পার্টির ২৩৩ জন প্রার্থী মনোনয়ন জমা দেন। এছাড়া ৪৯৮ জন স্বতন্ত্র প্রার্থী নির্বাচনে প্রতিদ্বন্দ্বিতা করার জন্য মনোনয়নপত্র জমা দিয়েছিলেন।

বিএনপি অধিকাংশ আসনেই একের অধিক প্রার্থী দেয়। আওয়ামী লীগ ১৭ আসনে এবং জাতীয় পার্টি ২৩ আসনে একাধিক প্রার্থীর মনোনয়নপত্র জমা দিয়েছিল। 

মনোনয়ন প্রত্যাহারের শেষ দিনে প্রত্যেক আসনে সব দলের চূড়ান্ত প্রার্থীর নাম জানা যাবে।