• শুক্রবার, ডিসেম্বর ১৩, ২০১৯
  • সর্বশেষ আপডেট : ১০:৫৬ রাত

ইমরান এইচ সরকারকে প্রার্থীতা ফিরিয়ে দিতে হাইকোর্টের নির্দেশ

  • প্রকাশিত ১০:৪৬ রাত ডিসেম্বর ৯, ২০১৮
ইমরান এইচ সরকার
ইমরান এইচ সরকার। ছবি: সংগৃহীত।

রবিবার বিচারপতি শেখ হাসান আরিফ ও বিচারপতি রাজিক আল জলিলের হাইকোর্ট বেঞ্চ এক রিট আবেদনের প্রাথমিক শুনানি শেষে এ আদেশ দেন

কুড়িগ্রাম-৪ আসনের স্বতন্ত্র প্রার্থী গণজাগরণ মঞ্চের মুখপাত্র ইমরান এইচ সরকারের মনোনয়নপত্র বাতিলের সিদ্ধান্ত স্থগিত করে তার প্রার্থীতা ফিরিয়ে দিয়ে নির্বাচনে অংশ গ্রহণের সুযোগ দিতে নির্বাচন কমিশনকে (ইসি) নির্দেশ দিয়েছে হাইকোর্ট।

রবিবার বিচারপতি শেখ হাসান আরিফ ও বিচারপতি রাজিক আল জলিলের হাইকোর্ট বেঞ্চ এক রিট আবেদনের প্রাথমিক শুনানি শেষে এ আদেশ দেন।

আদালতে ইমরানের পক্ষে শুনানি করেন ব্যারিস্টার তানিয়া আমীর। অন্যদিকে রাষ্ট্রপক্ষে শুনানি করেন অ্যাটর্নি জেনারেল মাহবুবে আলম। এর আগে গত ৭ ডিসেম্বর নির্বাচন কমিশনে আপিল শুনানি শেষে ইমরান এইচ সরকারের মনোনয়নপত্র বাতিলে রিটার্নিং অফিসারের সিদ্ধান্ত বহাল রাখেন নির্বাচন কমিশন (ইসি)।

গত ২ ডিসেম্বর রিটার্নিং কর্মকর্তার কার্যালয় থেকে বলা হয়, নির্বাচনে প্রার্থী হতে হলে সংশ্লিষ্ট নির্বাচনী আসনের মোট ভোটারের ন্যূনতম ১ শতাংশ ভোটারের সমর্থন থাকতে হয়। স্বতন্ত্র প্রার্থী হিসেবে মনোনয়ন প্রত্যাশী ইমরান এইচ সরকারের এ বিষয়ে ঘাটতি রয়েছে। তাই জেলা রিটার্নিং কর্মকর্তা তার মনোনয়নপত্রটি বাতিল বলে ঘোষণা করেন। পরে তিনি নির্বাচন কশিমনে আপিল করেন। গত ৭ ডিসেম্বর নির্বাচন কমিশন তাদের সিদ্ধান্তে বলেছিল, ইমরানের মনোনয়নপত্রে নির্দিষ্ট সংখ্যক জনসমর্থনের তথ্য জমা না দেয়ায় মনোনয়নপত্র বাতিল করা হয়। এই সিদ্ধান্তই বহাল রাখা হলো। পরে সেই সিদ্ধান্তের বৈধতা চ্যালেঞ্জ করে আজ হাইকোর্টে রিট দায়ের করেন ইমরান এইচ সরকার।

আদালত ওই রিটের শুনানি নিয়ে এ বিষয়ে রুল জারি করেন। একইসঙ্গে মনোনয়নপত্র বাতিলে নির্বাচন কমিশনের সিদ্ধান্ত স্থগিত করেন। পাশাপাশি রিটকারীর মনোনয়নপত্র প্রহণ করে তাকে প্রার্থী হয়ে নির্বাচন করার সুযোগ দিতে আদালত নির্দেশ দেয়।

প্রসঙ্গত, কুড়িগ্রাম-৪ আসনে স্বতন্ত্র প্রার্থী হিসেবে নির্বাচন করতে মনোনয়নপত্র জমা দিয়েছিলেন ইমরান এইচ সরকার। রৌমারী, রাজীবপুর ও চিলমারী-এই তিন উপজেলা মিলে কুড়িগ্রাম-৪ আসনে তিনি নির্বাচন করতে চান