• রবিবার, মার্চ ২৯, ২০২০
  • সর্বশেষ আপডেট : ১০:৪৭ রাত

মির্জা ফখরুলের ওপর হামলায় নির্বাচন কমিশন বিব্রত, মর্মাহত

  • প্রকাশিত ০৩:৫৬ বিকেল ডিসেম্বর ১২, ২০১৮
CEC
প্রধান নির্বাচন কমিশনার (সিইসি) কে এম নূরুল হুদা। ছবি: সংগৃহীত

"দুটো ঘটনা ঘটেছে, যা আমাদের বিব্রত করেছে, মর্মাহত করেছে”

প্রধান নির্বাচন কমিশনার (সিইসি) কে এম নুরুল হুদা বলেছেন, বিএনপি মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীরের গাড়িবহরে হামলার ঘটনায় কমিশন বিব্রত ও মর্মাহত হয়েছে।

এছাড়া নোয়াখালীতে যুবক নিহতের ঘটনায় দুঃখপ্রকাশ করেন তিনি। 

বুধবার (১২ ডিসেম্বর) ঢাকায় নির্বাচন ভবনে জুডিশিয়াল ম্যাজিস্ট্রেটদের নিয়ে এক ব্রিফিংয়ে সিইসি এ মন্তব্য করেন। 

সিইসি বলেন, “গতকাল (মঙ্গলবার) আনন্দের সঙ্গে বলেছিলাম, সারা দেশে নির্বাচনী কার্যক্রমে কোনো অঘটন ঘটেনি। কিন্তু তারপরই দুটো ঘটনা ঘটেছে, যা আমাদের বিব্রত করেছে, মর্মাহত করেছে।”

তিনি আরও বলেন, “গতকাল নোয়াখালীতে একজন যুবক নিহত হয়েছে এটা অত্যন্ত বিব্রত করেছে, ব্যথা দিয়েছে। ঠাকুরগাঁওয়ে বিএনপি মহাসচিবর ওপর হামলা হয়েছে এটা অনাকাঙ্খিত।”

নুরুল হুদা বলেন, সারা দেশে যে ৩০০টি আসনে নির্বাচন হবে, তার যে মূল্য, একটা মানুষের জীবনের মূল্য তার চেয়ে বেশি। সহিংসতার কারণে সেই জীবন চলে গেল, এটা কারও কাম্য হতে পারে না। এই অবস্থা থেকে উত্তরণের পথ খুঁজে বের করতে হবে।

রাজনৈতিক দলগুলোর নেতা, প্রার্থী, ভক্ত ও সমর্থকদের উদ্দেশে সিইসি বলেন, আপনারা ধৈর্যশীল আচরণ করবেন। নির্বাচনী আচরণবিধি মেনে চলবেন, কারও নির্বাচনী প্রচারণায় প্রতিবন্ধকতা সৃষ্টি করবেন না। একে অন্যের গণতান্ত্রিক অধিকার, মৌলিক অধিকারের প্রতি সম্মান দেখাবেন। যেকোনো উত্তেজনাকর, উদ্বেগজনক নির্বাচন পরিপন্থী ও অনাকাঙ্ক্ষিত কার্যাবলি পরিহার করবেন এবং নিজেরাই তার প্রতিহত করবেন।

জুডিশিয়াল ম্যাজিস্ট্রেটদের উদ্দেশে সিইসি বলেন, নির্বাচনের পরিবেশ সৃষ্টি করতে হবে। মানুষকে আশ্বস্ত করতে হবে নির্বাচন সহিংসতার জায়গা নয়। নির্বাচন মানুষের ভোটাধিকার ও গণতান্ত্রিক অধিকার প্রয়োগের জায়গা।

এবারের জাতীয় নির্বাচনকে বৈশিষ্ট্যপূর্ণ ও গুরুত্বপূর্ণ নির্বাচন উল্লেখ করে কেএম নুরুল হুদা বলেন, এটা সবদিক দিয়ে আলাদা নির্বাচন। আগের কোনো নির্বাচনের সঙ্গে তুলনা করা যায় না। প্রতিটা কেন্দ্রে গড়ে ছয়জন প্রার্থী, সারা দেশে মোট ১ হাজার ৮০০-এর বেশি প্রার্থী মাঠে থাকবেন, প্রতিদ্বন্দ্বিতা করবেন। নির্বাচন অত্যন্ত প্রতিযোগিতামূলক ও প্রতিদ্বন্দ্বীতাপূর্ণ হবে বলে আশা করি।