• শুক্রবার, নভেম্বর ১৫, ২০১৯
  • সর্বশেষ আপডেট : ১০:৪৬ রাত

চাঁদপুরে এক পরিবারের ৪ মরদেহ উদ্ধার

  • প্রকাশিত ১১:১৬ সকাল ডিসেম্বর ১৭, ২০১৮
মঈনুদ্দীন
দুই সন্তানের সাথে মঈনুদ্দীন। ছবি: ঢাকা ট্রিবিউন

পুলিশের প্রাথমিক ধারণা, স্ত্রী ও সন্তানদের হত্যা করে মাঈনুদ্দিন গলায় ফাঁস লাগিয়ে আত্মহত্যা করেছেন

চাঁদপুরে উপজেলার দেবপুর গ্রামের বড় হুজুরের বাড়িতে একই পরিবারের চারজনের মরদেহ উদ্ধার করা হয়েছে। নিহত ব্যক্তিদের মধ্যে দুটি শিশু রয়েছে বলে প্রথম আলোর এক প্রতিবেদনে জানা গেছে। সোমবার সকালে মরদেহ দেখে পুলিশকে খবর দেয় এলাকাবাসী।

নিহত ব্যক্তিরা হলেন মাইনুদ্দীন (২৬), তাঁর স্ত্রী ফাতেমা বেগম (২৪), তাঁর দুই সন্তান মিথিলা (৫) ও সিয়াম (১)। এলাকাবাসীর দেয়া তথ্যানুযায়ী, রোববার মাইনুদ্দীন চট্টগ্রামে তার কর্মক্ষেত্র থেকে চাঁদপুর নিজ বাড়িতে আসেন। তিনি রাতে সামাজিক যোগাযোগমাধ্যম ফেসবুকে মৃত্যুবিষয়ক একটি ভিডিও পোস্ট করেন। 

এ প্রসঙ্গে রামপুর ইউনিয়ন পরিষদের (ইউপি) চেয়ারম্যান আর মামুন পাটোয়ারি প্রতিবেদনটিতে জানান, মাইনুদ্দীন চট্টগ্রামে একটি বেকারি কারখানায় কাজ করতেন। 

ঘটনাস্থল থেকে জেলা পুলিশ সুপার জিহাদ কবির  বলেন, স্থানীয় মাধ্যমে খবর পেয়ে পুলিশ নিহতদের লাশ উদ্ধার করে মর্গে পাঠিয়েছে।

ঘটনা তদন্তে পুলিশ গেলে নিহত মাইনুদ্দীনের ঝুলন্ত লাশ দেখতে পায় পুলিশ। এসময় বাড়ির পাশের পুকুরে ফাতেমা বেগমের মরদেহও দেখতে পায় তারা।এছাড়াও দুই শিশুর মরদেহ ঘরের ভেতরে পাওয়া গেছে। লাশগুলো এখনো ঘটনাস্থলে রয়েছে বলেও ঐ প্রতিবেদনে জানা গেছে।

তবে, এ হত্যাকাণ্ডের তাৎক্ষণিক কোনো কারণ জানাতে না পারলেও পুলিশের প্রাথমিক ধারণা, স্ত্রী ও সন্তানদের হত্যা করে মাঈনুদ্দিন গলায় ফাঁস লাগিয়ে আত্মহত্যা করেছেন।