• শনিবার, জানুয়ারী ১৮, ২০২০
  • সর্বশেষ আপডেট : ১০:১৯ সকাল

ছিঁড়ে গেছে পোস্টার, ঝুলছে রশি

  • প্রকাশিত ০৮:৫০ রাত ডিসেম্বর ১৮, ২০১৮
রশি
শীতের শুরুতে অনাকাঙ্খিত বৃষ্টিতে ছিঁড়ে গেছে নির্বাচনী পোস্টার। ছবি: ঢাকা ট্রিবিউন

বিষয়টিকে অর্থ এবং সময় উভয়েরই অপচয় হিসেবে দেখছেন তারা

দরজায় কড়া নাড়ছে একাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচন। দেশের সবগুলো আসনেই পাড়া-মহল্লা, অলি-গলি ছেয়ে গেছে নির্বাচনী প্রচারণার পোস্টারে। প্রতীক পাওয়ার পর থেকেই প্রার্থীদের সমর্থকরা প্রতিযোগিতা করে সড়কের উপর ঝুলিয়েছিলেন নিজেদের প্রতীকের পোস্টার। তবে বঙ্গোপসাগরে সৃষ্ট ঘূর্ণিঝড় ‘পেথাইয়ে’র প্রভাবে সোমবার (১৭ ডিসেম্বর) থেকে অব্যাহত গুঁড়ি গুঁড়ি বৃষ্টিতে সেসব পোস্টার ছিঁড়ে পড়েছে মাটিতে। তাই এখন শুধু ঝুলছে পোস্টার শুন্য রশি।

মঙ্গলবার (১৮ ডিসেম্বর) সিলেট নগরীর জিন্দাবাজার, বন্দর বাজার, আম্বরখানা, টিলাগড়সহ বিভিন্ন এলাকা ঘুরে এমন চিত্র দেখা গেছে। তবে প্রচারণার পোস্টার গলে পড়লেও প্রতিকূল আবহাওয়া প্রভাব ফেলতে পারেনি প্রার্থীদের প্রচারণায়। সকাল থেকেই নেতাকর্মীদের সঙ্গে নিয়ে বিভিন্ন পাড়া-মহল্লায় ঘুরে বেড়াচ্ছেন তারা। নানা প্রতিশ্রুতি দিয়ে ভোটারদের মনজয়ের চেষ্টা করছেন তারা।

এদিকে, অল্প বৃষ্টিতে পোস্টার ছিঁড়ে যাওয়ার কারণ হিসেবে পলিথিন না মোড়ানোয় এমনটি হয়েছে বলে জানিয়েছেন প্রার্থীদের প্রচারণার কাজের সাথে যুক্ত থাকা কর্মীরা। তারা বলছেন, এমনিতে বর্ষা মৌসুমে নির্বাচন হলে পোস্টার পলিথিনে অথবা পাতলা পলিথিনে লেমিনেট করে ঝুলানো হত। কিন্তু শীত মৌসুমে সেই ব্যবস্থা নেওয়া হয় নি। তাই অনাকাঙ্খিত বৃষ্টিতে সেগুলো ছিঁড়ে যাচ্ছে। বিষয়টিকে অর্থ এবং সময় উভয়েরই অপচয় হিসেবে দেখছেন তারা।

সিলেট সিটি কর্পোরেশন ও সদর উপজেলা নিয়ে গঠিত সিলেট-১ আসন। এ আসনে আওয়ামী লীগ নেতৃত্বাধীন মহাজোটের প্রার্থী ড. এ কে আবদুল মোমেন; যিনি নৌকা প্রতীকে লড়ছেন। অন্যদিকে, বিএনপি নেতৃত্বাধীন জাতীয় ঐক্যফ্রন্টের প্রার্থী খন্দকার আবদুল মুক্তাদির ধানের শীষ প্রতীকে নির্বাচন করছেন। 

এ দুজন ছাড়াও সিলেট-১ আসনে আরও আটজন প্রার্থী প্রতিদ্বন্দ্বিতা করছেন। তারা হলেন- জাতীয় পার্টির মাহবুবুর রহমান চৌধুরী (লাঙ্গল), ইসলামী আন্দোলনের রেদওয়ানুল হক চৌধুরী (হাতপাখা), বাসদের প্রণব জ্যোতি পাল (মই), বিপ্লবী ওয়ার্কাস পার্টির উজ্জল রায় (কোদাল), খেলাফত আন্দোলনের মাওলানা নাসির উদ্দিন (বট গাছ), এনপিপির ইউসুফ আহমদ (আম), ইসলামী ঐক্যজোটের মোহাম্মদ ফয়জুল হক (মিনার) ও বাংলাদেশ মুসলিম লীগের আনোয়ার উদ্দিন বোরহানাবাদী (হারিকেন)।