• শুক্রবার, নভেম্বর ১৫, ২০১৯
  • সর্বশেষ আপডেট : ১০:৪৬ রাত

৪৮ বছরে পদার্পন করলো বিমান বাংলাদেশ এয়ারলাইনস

  • প্রকাশিত ০৭:১৮ রাত জানুয়ারী ৪, ২০১৯
বিমান বাংলাদেশ এয়ারলাইনসের বোয়িং ৭৮৭ ড্রিমলাইনার উরোজাহাজ।
বিমান বাংলাদেশ এয়ারলাইনসের একটি উড়োজাহাজ। ফাইল ছবি।

গত ৪৭ বছরে ৫ কোটি ৪৭ লাখ যাত্রী পরিবহন করেছে বাংলাদেশ বিমান

৪ জানুয়ারি ৪৮ বছরে পা রাখলো বাংলাদেশের সরকারি বিমান পরিবহণ সংস্থাবিমান বাংলাদেশ এয়ারলাইনস। ১৯৭২ সালের ৪ জানুয়ারি জাতির জনক বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান বিমান বাংলাদেশ এয়ারলাইনস প্রতিষ্ঠা করেন।

বিমানের ব্যবস্থাপনা পরিচালক জানান,গত ৪৭ বছরে বিমান ৫ কোটি ৪৭ লাখ যাত্রী পরিবহন করেছে।

বর্তমানে বিমান বাংলাদেশ এয়ারলাইন বিমান বহরে রয়েছে ১৩টি উড়োজাহাজ যার দুটি হলো বোয়িংয়ের তৈরি ৭৮৭-৮ ড্রিমলাইনার আকাশবীণা ও হংসবলাকা।

এছাড়াও ২০১৯ সালের সেপ্টেম্বর মাসে বোয়িংয়েরতৈরিনতুন আরোদুটি৭৮৭-৮ড্রিমলাইনার বাংলাদেশ বিমানের উড়োজাহাজের বহরে যোগ হবে বলে বাংলা ট্রিবিউনের একটি খবরে জানানো হয়েছে। এই ড্রিমলাইনার দু’টি কেনার পাশাপাশি শুধুই মালামাল পরিবহনের জন্য ফ্রেইটার সার্ভিস চালু করার উদ্যোগনিয়েছে সংস্থাটি।

প্রসঙ্গতঃ গত বছরের ডিসেম্বর মাসে  বিমান বাংলাদেশ এয়ারলাইনসের বহরে যুক্ত হওয়া বোয়িংয়ের তৈরি ৭৮৭-৮ ড্রিমলাইনার হংসবলাকার উদ্বোধনকালে সংশ্লিষ্ট কর্তৃপক্ষকে শুধুমাত্র মালামাল পরিবহনের জন্য ফ্রেইটার সার্ভিস চালু করার উদ্যোগ নেওয়ার জন্য নির্দেশ দেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা।

প্রধানমন্ত্রীর এই নির্দেশের প্রেক্ষিতে তার নির্দেশে বিমানের ফ্রেইটার চালুর বিষয়ে ফিজিবল স্টাডির জন্য ১২ ডিসেম্বর পাঁচ সদস্যের বিমানের রাজস্ববিভাগেরমহাব্যবস্থাপককে প্রধান করে একটি কমিটি গঠন করা হয়।

উল্লেখ্য, নিজস্ব আকাশযানের পাশপাশি লিজেও উড়োজাহাজ সংগ্রহ করে বিমান। বাংলা ত্রিবিওউন একটী খবরে জানায় ২০১৯ সালে দু’টি বোয়িং ৭৩৭-৮০০ উড়োজাহাজ লিজ নেওয়ারও কথা রয়েছে বিমান বাংলাদেশ এয়ারলাইনসের।

বিমান বাংলাদেশের কর্তৃপক্ষ সূত্রে জানা যায়, বর্তমানে বিদ্যমান বিমান বহরের ১৩টি উড়োজাহাজ  দিয়ে মোট ১৫টি আন্তর্জাতিক ও ৭টি অভ্যন্তরীণ  গন্তব্যে উড়াল পরিচালনা করছে বিমান বাংলাদেশ এয়ারলাইনস।