• বুধবার, মার্চ ২০, ২০১৯
  • সর্বশেষ আপডেট : ১০:৫৬ রাত

সেপটিক ট্যাঙ্কে সাবেক সেনা সদস্যের লাশ

  • প্রকাশিত ১০:১৬ রাত জানুয়ারী ১১, ২০১৯
ফেনী

পুলিশের ধারণা কালামকে হত্যা করে ট্যাঙ্কে ফেলে মুখের ঢাকনা দিয়ে দেয়া হয়েছে

ফেনীর ছাগলনাইয়া উপজেলার মধুগ্রামে বৃহস্পতিবার একটি সেপটিক ট্যাঙ্ক থেকে নিখোঁজ অবসরপ্রাপ্ত সেনা সদস্য আবুল কালামের (৫৫) লাশ উদ্ধার করেছে পুলিশ।

আবুল কালাম ছাগলনাইয়া উপজেলার রাধানগর ইউনিয়নের পশ্চিম মধুগ্রামের মিদ্দা বাড়ির মৃত সামছুল হকের বড় ছেলে। তার দুই সংসারে সাত ছেলেমেয়ে রয়েছে।

ছাগলনাইয়া থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) এমএম মুর্শেদ জানান, গত ৪ জানুয়ারি থেকে নিখোঁজ ছিলেন আবুল কালাম। ওই দিন কালামকে বাড়িতে রেখে তার প্রথম স্ত্রী রেখা তার পাঁচ সন্তানকে সঙ্গে নিয়ে বাবার বাড়ি বেড়াতে যান। সেখান থেকে কালামের মোবাইলে ফোন দিলে ফোনটি বন্ধ পায় তার বড় ছেলে।

ইউএনবি জানায়, রেখা ও তার সন্তানরা এক সপ্তাহ পর বৃহস্পতিবার (১০ জানুয়ারি) বাড়িতে এসে দেখতে পায় টিনশেড ঘরের সব দরজা খোলা, জিনিসপত্র এলোমেলো। পরে ঘর পরিষ্কার করার সময় সেপটিক ট্যাঙ্কের ভেতর কালামের লাশ খুঁজে পায় তার পরিবার।

খবর পেয়ে লাশটি উদ্ধার করে ময়নাতদন্তের জন্য ফেনী সদর হাসপাতালে পাঠায় পুলিশ।

এদিকে জিজ্ঞাসাবাদের জন্য পুলিশ কালামের প্রথম স্ত্রী রেখা আক্তার, বড় ছেলে আবুল হাসান ও পাশের বাড়ির নুর ইসলামের ছেলে কৃষক হানিফকে থানায় নিয়ে আসে।

পুলিশ ধারণা করছে, কালামকে হত্যা করে ট্যাঙ্কে ফেলে মুখের ঢাকনা দিয়ে দেয়া হয়েছে।