• বৃহস্পতিবার, জানুয়ারী ২৪, ২০১৯
  • সর্বশেষ আপডেট : ০৭:৪২ রাত

নোয়াখালীতে কিশোরী স্ত্রীকে হত্যা, চট্টগ্রামে স্বামী আটক

  • প্রকাশিত ১২:০৮ দুপুর জানুয়ারী ১২, ২০১৯
গ্রেপ্তার
প্রতীকী ছবি

পুলিশ সুপার (এসপি) মো. ইলিয়াছ শরীফ জানান, আটকের পর জিজ্ঞাসাদে সেলিম অপরাধ স্বীকার করেছেন।

নোয়খালীর সদর উপজেলায় এক কিশোরীকে নৃশংসভাবে হত্যার ঘটনায় শেখ সেলিম নামের তার স্বামীকে চট্টগ্রাম থেকে আটক করেছে পুলিশ ব্যুরো অব ইনভেস্টিগেশন (পিবিআই)।

গতকাল শুক্রবার মধ্যরাতে পিবিআই-এর একটি দল চট্টগ্রামের চাটগাঁও থানার মৌলভী পুকুরপাড় এলাকায় অভিযান চালিয়ে ওই ব্যক্তিকে আটক করে।

আটক শেখ সেলিম (২৯) চট্টগ্রামের চাটগাঁও থানার মৌলভী পুকুরপাড় এলাকার বাসিন্দা এবং পেশায় একজন রাজমিস্ত্রি। তার বাড়ি নড়াইলের লোহাগাড়া উপজেলার ডিগ্রি গ্রামে।

এ বিষয়ে পুলিশ সুপার (এসপি) মো. ইলিয়াছ শরীফ জানান, আটকের পর জিজ্ঞাসাদে সেলিম অপরাধ স্বীকার করেছেন।

জেলা পিবিআই-এর পরিদর্শক তৌহিদুল আনোয়ার জানান, গত বুধবার রাতে নোয়াখালী সদর উপজেলার পূর্ব শুলন্ডুকিয়া গ্রামের জহিরুল হকের মেয়ে পারভীন আক্তার ফাহিমাকে (১৭) মুঠোফোনে বাড়ির পাশে ঝোপের মধ্যে ডেকে নিয়ে কুপিয়ে হত্যার পর লাশ ফেলে যায় শেখ সেলিম। পরে বিবস্ত্র ও ক্ষতবিক্ষত ওই  কিশোরীর লাশ উদ্ধার করে পুলিশ। এ সময় তার পেটে একটি ছুরি বিদ্ধ অবস্থায় ছিল। এ ঘটনার পর মোবাইল ফোন ট্র্যাকিংয়ের মাধ্যমে সেলিমের অবস্থান সম্পর্কে নিশ্চিত হয় পিবিআই।

জবানবন্দিতে সেলিম জানায়, তিনি ও ফাহিমা চট্টগ্রামে গার্মেন্টস কারখানায় কাজ করার সময় তাদের বিয়ে হয়। সেলিমের আরও এক স্ত্রী ও সন্তান রয়েছে। বিয়ের পর ফাহিমা সেলিমের সঙ্গে থাকতে রাজি না হওয়ায় বুধবার তিনি নোয়াখালী গিয়ে এই ঘটনা ঘটিয়ে আবার চট্টগ্রামে ফিরে যান।