• রবিবার, ফেব্রুয়ারি ২৩, ২০২০
  • সর্বশেষ আপডেট : ১০:৩৩ রাত

শিক্ষার্থীদের জন্য দেওয়া সরকারি বিস্কুটে চেয়ারম্যানের অতিথি আপ্যায়ন!

  • প্রকাশিত ০৫:২৭ সন্ধ্যা জানুয়ারী ১৮, ২০১৯
মানচিত্রে গোপালগঞ্জ
মানচিত্রে গোপালগঞ্জ। ছবি: ঢাকা ট্রিবিউন

‘‘চেয়ারম্যান দীর্ঘদিন ধরে ওই বিস্কুট দিয়েই অতিথি আপ্যায়ন করে আসছেন।’’

গোপালগঞ্জে প্রাথমিক বিদ্যালয়ের শিশুদের স্কুল ফিডিং প্রকল্পের আওতায় বরাদ্দকৃত টিফিনের সরকারি বিস্কুটে অতিথি আপ্যায়নের অভিযোগ উঠেছে এক ইউপি চেয়ারম্যানের বিরুদ্ধে। 

অভিযুক্ত চেয়ারম্যান হলেন কাশিয়ানী উপজেলার রাজপাট ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান এম. ডি মনিরুল আলম। তিনি ইউনিয়ন পরিষদে যাওয়া অতিথিদের সরকারি বিস্কুট দিয়ে আপ্যায়ন করছেন বলে অভিযোগ করেছেন নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক ইউপি সদস্য ও স্থানীয়রা। 

জানা গেছে, গত বৃহস্পতিবার (১৭ জানুয়ারি) দুপুরে ওই ইউনিয়ন পরিষদ ভবনে গভীর নলকূপ বিতরণকে কেন্দ্র করে ইউপি চেয়ারম্যান ও ইউপি সদস্যদের মধ্যে হাতাহাতির ঘটনা ঘটে। খবর শুনে সেখানে যান স্থানীয় গণমাধ্যম কর্মী, পুলিশসহ স্থানীয় গণ্যমান্য ব্যক্তিরা। এ সময় তাদেরকে সরকারের স্কুল ফিডিং প্রকল্পের আওতায় প্রাথমিক বিদ্যালয়ের শিক্ষার্থীদের জন্য বরাদ্দ করা বিস্কুট দিয়ে আপ্যায়ন করা হয়।  

আরও পড়ুন- নলকূপ নিয়ে চেয়ারম্যান-মেম্বারদের হাতাহাতি

এ সময় স্থানীয়রা উপস্থিত গণমাধ্যম কর্মীদের কাছে অভিযোগ করে বলেন, ‘‘রাজপাট ইউনিয়নের আওতাধীন সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়গুলোর শিশুদের স্কুল ফিডিং প্রকল্পের আওতায় টিফিনের বিস্কুট ইউনিয়ন পরিষদ ভবনের একটি কক্ষে মজুদ রাখা হয়েছে। সেখান থেকে বিদ্যালয়গুলোতে চাহিদা অনুযায়ী বিস্কুট পাঠানোর কথা। কিন্তু চেয়ারম্যান মনিরুল আলম দীর্ঘদিন ধরে ওই বিস্কুট দিয়েই অতিথি আপ্যায়ন করে আসছেন।’’

এ ঘটনার সুষ্ঠু তদন্তসহ ইউপি চেয়ারম্যানের বিরুদ্ধে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা গ্রহণের দাবি জানান অভিযোগকারীরা।

এ বিষয়ে চেয়ারম্যান মনিরুল আলম মুঠোফোনে ঢাকা ট্রিবিউনের কাছে অভিযোগ অস্বীকার করে বলেন, প্রতিপক্ষ প্রতিহিংসা চরিতার্থ করতেই আমার বিরুদ্ধে মিথ্যা অপপ্রচার করছে। আমি কখনোই সরকারি বিস্কুট দিয়ে অতিথি আপ্যায়ন করিনি। 

কাশিয়ানী উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা এ.এস.এম মাঈন উদ্দিন ঢাকা ট্রিবিউনকে বলেন, ‘‘আমি বিষয়টি শুনেছি। এটা অত্যন্ত ন্যাক্কারজনক ঘটনা। এ ব্যাপারে ইউপি চেয়ারম্যানকে নোটিশ করা হয়েছে।’’