• বুধবার, নভেম্বর ২০, ২০১৯
  • সর্বশেষ আপডেট : ১১:০৯ রাত

ভেজাল ওষুধ: মিটফোর্ডের দুই ব্যবসায়ীর ১৪ বছর করে কারাদণ্ড

  • প্রকাশিত ১০:১০ রাত জানুয়ারী ২২, ২০১৯
ভেজাল ওষুধ
ছবি- প্রতীকী। বিগস্টক

আসামিরা জামিন নিয়ে পলাতক রয়েছেন

রাজধানীর মিটফোর্ডের দুই ব্যবসায়ীকে ভেজাল ওষুধ তৈরি ও বিক্রির দায়ে ১৪ বছর করে কারাদণ্ড দিয়েছেন আদালত।

পাশাপাশি ৫০ হাজার টাকা করে জরিমানা, অনাদায়ে আরও ছয় মাসের কারাদণ্ড দেয়া হয়েছে।

মঙ্গলবার (২২ জানুয়ারি) ঢাকার ১৬ নম্বর মহানগর বিশেষ ট্রাইব্যুনালের বিচারক ফারহানা ফেরদৌস আসামিদের অনুপস্থিতিতে এ রায় ঘোষণা করেন। খবর ইউএনবি'র।

দণ্ডপ্রাপ্তরা হলেন- মুন্সিগঞ্জের সিরাজদিখানের চিত্রকোট এলাকার রাজনগর খালপারের বাসিন্দা মৃত ওমর আলীর ছেলে নুর ইসলাম ও একই এলাকার মৃত আজিজের ছেলে আলম হোসেন। আসামিরা জামিন নিয়ে পলাতক রয়েছেন।

এ বিষয়ে রাষ্ট্রপক্ষের আইনজীবী মো. মাজহারুল হক সাংবাদিকদের জানান, মামলার বিচার চলাকালে আসামিরা জামিন পান। তবে রায় ঘোষণার সময় তারা পলাতক ছিলেন। তাদের বিরুদ্ধে গ্রেপ্তারি পরোয়ানা জারি করেছেন আদালত।

মামলা সূত্রে জানা গেছে, ২০১৫ সালের ৮ মার্চ মিটফোর্ড এলাকার ওষুধ মার্কেটের দোতালায় ৩৯ ও ২০২ নম্বর দোকানে সিআইডি পুলিশ অভিযান চালায়। এসময় আসামিদের গোডাউন থেকে ৭ হাজার ৪ শত প্যাকেট অ্যামোক্রিসিলিন ভেজাল ক্যাপসুল উদ্ধার করা হয়। এ ছাড়া ভেজাল ওষুধ তৈরির জন্য ৩ বস্তা সিপ্রোফক্সিন এর খালি প্যাকেট এবং তিন রোল এ্যালুমেনিয়াম ফয়েল (ক্যাপসুলের স্ট্রিপ তৈরির উপকরণ) জব্দ করা হয়। পরে জব্দ করা ওষুধ বিশেষজ্ঞদের মতামতের জন্য পরীক্ষাগারে পাঠানো হলে সেখানে ভেজাল প্রমাণিত হয়।

এ ঘটনায় রাজধানীর বংশাল থানায় ২০১৫ সালের ৯ এপ্রিল মামলা করা হয়। পরে ঘটনার তদন্ত করে আদালতে দুই আসামির বিরুদ্ধে অভিযোগপত্র দাখিল করে পুলিশ।