• সোমবার, ডিসেম্বর ১৬, ২০১৯
  • সর্বশেষ আপডেট : ০৭:০৩ রাত

পলক: প্রতিবন্ধী জনগোষ্ঠীকে কেন্দ্রীয় তথ্য ভান্ডারের আওতায় আনা হবে

  • প্রকাশিত ০৬:৩৮ সন্ধ্যা জানুয়ারী ২৭, ২০১৯
জুনাইদ আহমেদ পলক
রবিবার পার্বত্য চট্টগ্রাম বিষয়ক মন্ত্রণালয়ের সভা কক্ষে ভিডিও কনফারেন্সিং এর মাধ্যমে আইসিটি বিভাগের অধীন বিসিসির ৬টি আঞ্চলিক কার্যালয়ে প্রতিবন্ধীদের জন্য কম্পিউটার ট্রেনিং কোর্সের আনুষ্ঠানিক উদ্বোধন করেন তথ্য ও যোগাযোগ প্রযুক্তি প্রতিমন্ত্রী জুনাইদ আহমেদ পলক। ছবি: ইউএনবি।

'ডিজিটাল বাংলাদেশ বিনির্মাণে সরকার অনেক দূর এগিয়ে গেছে'

তথ্য ও যোগাযোগ প্রযুক্তি প্রতিমন্ত্রী জুনাইদ আহমেদ পলক বলেছেন, সরকার দেশের প্রতিবন্ধী জনগোষ্ঠীকে প্রশিক্ষণ প্রদানের মাধ্যমে আত্মকর্মসংস্থান স্বনির্ভর করে তুলতে বিভিন্ন কর্মসূচি বাস্তবায়ন করছে।

তিনি বলেন, "দেশে যে সকল প্রতিবন্ধী জনগোষ্ঠী রয়েছে তাদের কেন্দ্রীয় তথ্য ভান্ডারের (সেন্ট্রাল ডাটা বেজ) আওতায় আনা হবে। এছাড়া তারা যেন যোগ্যতা অনুযায়ী চাকরি পেতে পারে এবং উপযুক্ত প্রশিক্ষণের মাধ্যমে উদ্যোক্তা হতে পারে সে লক্ষ্যে কার্যক্রম গ্রহণ করা হবে।"

রবিবার (২৭ জানুয়ারি) পার্বত্য চট্টগ্রাম বিষয়ক মন্ত্রণালয়ের সভা কক্ষে ভিডিও কনফারেন্সিং এর মাধ্যমে আইসিটি বিভাগের অধীন বিসিসির ৬টি আঞ্চলিক কার্যালয়ে প্রতিবন্ধীদের জন্য ‘নিউরো ডেভোলপমেন্টাল ডিজঅর্ডার প্রকল্প’ এর আওতায় কম্পিউটার ট্রেনিং কোর্সের আনুষ্ঠানিক উদ্বোধনকালে পলক এসব কথা বলেন।

প্রতিমন্ত্রী বলেন, "প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা ডিজিটাল বাংলাদেশ বিনির্মাণে যে ঘোষণা দিয়েছিলেন তা গড়ার ক্ষেত্রে সরকার অনেক দূর এগিয়ে গেছে"।

"সরকার ২০১৩ সালে প্রতিবন্ধী জনগোষ্ঠীর উন্নয়নে প্রতিবন্ধীদের অধিকার ও সুরক্ষা আইন পাস করেছে। যারা নিজের ভাগ্য নির্ধারণে লড়াই চালিয়ে যাচ্ছেন, শারীরিক প্রতিবন্ধকতাকে জয় করার জন্য লড়াই করছেন তাদের স্বয়ংসম্পূর্ণ করতে সকল প্রচেষ্টা অব্যাহত থাকবে", যোগ করেন পলক।

উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে বিসিসি প্রধান কার্যালয় থেকে যুক্ত ছিলেন- নির্বাহী পরিচালক (ভারপ্রাপ্ত) মো. রেজাউল করিম, পরিচালক এনামুল কবির, প্রকল্প পরিচালক মো. মনোয়ার উজ জামান ও গোলাম রব্বানী। এছাড়াও বিসিসির ৬টি আঞ্চলিক কার্যালয়ের রাজশাহী, খুলনা, বরিশাল, সিলেট, চট্টগ্রাম ও ফরিদপুর সেন্টার ইনচার্জরা যুক্ত ছিলেন।