• সোমবার, আগস্ট ১৯, ২০১৯
  • সর্বশেষ আপডেট : ১০:৪২ সকাল

বাংলাদেশ ব্যাংকের রিজার্ভ চুরি: ফিলিপাইনের আরসিবিসি’র বিরুদ্ধে মামলা

  • প্রকাশিত ০১:৪১ দুপুর ফেব্রুয়ারি ১, ২০১৯
বাংলাদেশ ব্যাংক

রিজার্ভের অর্থচুরির ঘটনার সঙ্গে জড়িত থাকার অভিযোগে আরসিবিসি, ফিলিপাইনের ক্যাসিনোসহ অন্যান্যদের আসামি করে নিউইয়র্কের আদালতে একটি মামলা দায়ের করা হয়েছে।

যুক্তরাষ্ট্রের ফেডারেল রিজার্ভ ব্যাংক অব নিউইয়র্কে রক্ষিত বাংলাদেশ ব্যাংকের ফরেন রিজার্ভ থেকে ৮১ মিলিয়ন মার্কিন ডলার চুরির ঘটনায় ফিলিপাইনের রিজাল কমার্শিয়াল ব্যাংকিং করপোরেশনের (আরসিবিসি) বিরুদ্ধে মামলা দায়ের করেছে বাংলাদেশ।

ইউএনবি'র প্রতিবেদন অনুসারে, বাংলাদেশ ব্যাংকের অর্থ তদারকি বিষয়ক গোয়েন্দা সংস্থা- বাংলাদেশ ফাইন্যান্সিয়াল ইন্টেলিজেন্স ইউনিটের (বিআইএফইউ) প্রধান আবু হেনা মোহাম্মদ রাজি হাসান জানান, রিজার্ভের অর্থচুরির ঘটনার সঙ্গে জড়িত থাকার অভিযোগে আরসিবিসি, ফিলিপাইনের ক্যাসিনোসহ অন্যান্যদের আসামি করে নিউইয়র্কের আদালতে একটি মামলা দায়ের করা হয়েছে।

তিনি বলেন, "মামলাটির বিষয়ে বিস্তারিত তথ্য রবিবার সংবাদ সম্মেলন করে জানানো হবে"।

উল্লেখ্য, ২০১৬ সালের ফেব্রুয়ারিতে হ্যাকিংয়ের মাধ্যমে যুক্তরাষ্ট্রের ফেডারেল রিজার্ভ ব্যাংক অব নিউইয়র্কে (নিউইয়র্ক ফেডারেল) রক্ষিত বাংলাদেশ ব্যাংকের ফরেন রিজার্ভ থেকে ৮১ মিলিয়ন মার্কিন ডলার চুরি করা হয়। আন্তর্জাতিক হ্যাকাররা প্রায় ১০০ কোটি মার্কিন ডলার চুরি করার ষড়যন্ত্র করেছিল।

এর কয়েক মাসের মধ্যেই শ্রীলঙ্কার ব্যাংকে যাওয়া ২০ মিলিয়ন মার্কিন ডলার অর্থ ফেরত আনা সম্ভব হয়। তবে ম্যানিলা ভিত্তিক আরসিবিসি ব্যাংকে যাওয়া ৮১ মিলিয়ন মার্কিন ডলার উদ্ধার করা যায়নি।

পরে ফিলিপাইন সরকার ৮১ মিলিয়ন মার্কিন ডলারের মধ্যে ১৮ মিলিয়ন মার্কিন ডলার বাংলাদেশকে ফেরত দেয়।

এদিকে বাংলাদেশে ব্যাংকের রিজার্ভের অর্থচুরির আলোচিত ঘটনায় তৎকালীন আরসিবিসি’র ম্যানেজার মায়া সান্তোস-দেগিতোসহ বেশ কয়েকজন কর্মকর্তাকে অভিযুক্ত করা হয়।

দীর্ঘ তিন বছরের আইনী প্রক্রিয়া শেষে গত ১০ জানুয়ারি দোষী সাব্যস্ত করে দেগিতোকে ৪-৭ বছরের কারাদণ্ডের আদেশ দেয় ফিলিপাইনের একটি আঞ্চলিক আদালত। একই সঙ্গে তাকে ১০৩ মিলিয়ন মার্কিন ডলার জরিমানা করা হয়।