• মঙ্গলবার, মার্চ ৩১, ২০২০
  • সর্বশেষ আপডেট : ০৮:১৪ রাত

ঝালকাঠিতে মিথ্যা ধর্ষণ মামলা দেয়ায় কারাদণ্ড

  • প্রকাশিত ১০:৪৫ সকাল ফেব্রুয়ারি ৪, ২০১৯
আদালত
প্রতীকী ছবি

মামলার বাদী এবং তার পরামর্শককে ৬ মাসের কারাদণ্ড দিয়েছেন আদালত

ঝালকাঠিতে মিথ্যা ধর্ষণ মামলা করায় বাদী রেনু বেগম ও তার পরামর্শদাতা আজাদ রহমানকে ছয় মাসের সশ্রম কারাদণ্ড দিয়েছে আদালত।

রবিবার আসামি রেনু বেগমের উপস্থিতিতে জেলার নারী ও শিশু নির্যাতন দমন বিশেষ ট্রাইব্যুনাল আদালত-২ এর বিচারক এসকে এম তোফায়েল হাসান আটজন সাক্ষীর সাক্ষ্যগ্রহণ শেষে এই রায় ঘোষণা করেন।

একই সাথে তাদের প্রত্যেককে দুই হাজার টাকা জরিমানা অনাদায়ে আরও এক মাসের বিনাশ্রম কারাদণ্ড দেয়া হয়। তবে রায় ঘোষণার সময় বাদীর পরামর্শদাতা আজাদ রহমান আদালতে উপস্থিত ছিলেন না।

আদালত সূত্রে জানা গেছে, ঝালকাঠি শহরের পাল বাড়ি এলাকার মৃত আবুল কাশেম হাওলাদারের স্ত্রী রেনু বেগম একই এলাকার আজাদ রহমানের পরামর্শে ঝালকাঠির সাবেক মেয়র আফজাল হোসেন ও বাবুল হাওলাদার নামে দুজনকে আসামি করে গণধর্ষণ মামলা দায়ের করেন।

ঝালকাঠির নারী ও শিশু নির্যাতন দমন বিশেষ ট্রাইব্যুনাল-১ আদালতে ২০০৩ সালের ১৬ অক্টোবর অভিযোগ দায়েরের পর আদালত ভিকটিম রেনু বেগমকে মেডিকেল পরীক্ষার জন্য সদর হাসপাতালে পাঠায়। ২৯ অক্টোবর ডাক্তারি পরীক্ষার রিপোর্ট পাওয়ার পরে আদালত তৎকালীন উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তাকে তদন্ত করে প্রতিবেদন দাখিলের নির্দেশ দেয়। ডাক্তারি পরীক্ষার রিপোর্ট ও নির্বাহী কর্মকর্তার রিপোর্টে ঘটনাটি মিথ্যা প্রমাণিত হয়। এরপর ১৬ নভেম্বর উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তার রিপোর্ট পাওয়ার পরে রেনু বেগম ও আজাদ রহমানের বিরুদ্ধে ঝালকাঠির নারী ও শিশু নির্যাতন দমন বিশেষ ট্রাইব্যুনাল-১ আদালত ১৬ ধারায় অভিযোগ আমলে নিয়ে ভিকটিম ও পরামর্শদাতা এই দুজনের বিরুদ্ধে গ্রেপ্তারি পরোয়ানা জারি করে। পরবর্তীতে আজাদ রহমান হাইকোর্ট থেকে জামিন নেন।