• বুধবার, মে ২২, ২০১৯
  • সর্বশেষ আপডেট : ১০:৪৮ রাত

উখিয়ায় রোহিঙ্গাদের হামলায় তিন জার্মান সাংবাদিকসহ আহত ৬

  • প্রকাশিত ০৬:৩২ সন্ধ্যা ফেব্রুয়ারি ২১, ২০১৯
রোহিঙ্গা হামলা
বৃহস্পতিবার উখিয়ায় রোহিঙ্গা ক্যাম্পে জার্মান সাংবাদিকদের ওপর হামলা চালিয়ে তাদের বহনকারী গাড়িটি ভাঙচুর করে রোহিঙ্গারা। ছবি: ঢাকা ট্রিবিউন

রোহিঙ্গারা বিদেশি সাংবাদিকদের ব্যবহৃত গাড়ি ভাঙচুর করে। এমনকি তাদের ক্যামেরা, পাসপোর্ট এবং সঙ্গে থাকা জিনিসপত্রও ছিনিয়ে নেয়

কক্সবাজারের উখিয়ার কুতুপালং রোহিঙ্গা ক্যাম্পে তিন জার্মান সাংবাদিক ও পুলিশসহ ৬ জনকে ব্যাপক মারধর করেছে রোহিঙ্গারা। এসময় ভাঙচুর করা হয় তাদের ব্যবহৃত মাইক্রোবাসটিও।

বৃহস্পতিবার (২১ ফেব্রুয়ারি) বিকেল ৩ টার দিকে কুতুপালং ক্যাম্প-১ ইস্ট এর লম্বাশিয়া বাজারে এ ঘটনা ঘটে।

কক্সবাজারের অতিরিক্ত পুলিশ সুপার ইকবাল হোসাইন জানান, জার্মান সাংবাদিকরা ক্যাম্প-৪ এক্সটেনশন থেকে সংবাদ সংগ্রহ শেষে ফেরার পথে লম্বাশিয়ায় বাজারে এক রোহিঙ্গা পরিবারকে জামা-কাপড় কিনে দিচ্ছিলেন। কিন্তু ক্যাম্পের ভেতরে অবস্থানরত রোহিঙ্গারা 'শিশুদের কৌশলে বিদেশে নিয়ে যাওয়া হচ্ছে' ভেবে সাংবাদিকদের ওপর হামলা চালায়। তাদের উদ্ধার করতে গিয়ে উগ্র রোহিঙ্গাদের হাতে আহত হন জাকির হোসেন নামে এক পুলিশ সদস্য।

স্থানীয় সূত্র জানায়, রোহিঙ্গারা বিদেশি সাংবাদিকদের ব্যবহৃত গাড়ি ভাঙচুর করে। এমনকি তাদের ক্যামেরা, পাসপোর্ট এবং সঙ্গে থাকা জিনিসপত্রও ছিনিয়ে নেয়। আহতদের উদ্ধার করে সেনা ক্যাম্পে হাসপাতালে নিয়ে এসে চিকিৎসা দেওয়া হয়।

হামলায় আহতরা হলেন- জার্মান সাংবাদিক ইয়োচো লিওলি, এস্ট্যাটিউ এপল ও গ্রান্ডস স্ট্যাফু, তাদের বাংলাদেশি দোভাষী মো. সিহাবউদ্দিন (৪১) এবং গাড়ির চালক নবীউল আলম (৩০)।

ঘটনাটি নিশ্চিত করে উখিয়ার থানার ওসি আবুল খায়ের ঢাকা ট্রিবিউনকে জানান, জার্মান সাংবাদিকদের হামলার ঘটনায় জড়িতদের ধরতে ও মালামাল উদ্ধারে অভিযান চালানো হচ্ছে।