• সোমবার, ফেব্রুয়ারি ১৭, ২০২০
  • সর্বশেষ আপডেট : ০৯:৩১ রাত

বিমান ‘ছিনতাইয়ের’ ঘটনায় তদন্ত কমিটি গঠন

  • প্রকাশিত ০৩:১০ বিকেল ফেব্রুয়ারি ২৫, ২০১৯
বিমান ছিনতাই
রবিবার বিকাল ৫.৪০ মিনিটে চট্টগ্রামের শাহ আমানত আন্তর্জাতিক বিমানবন্দরে বিমান বাংলাদেশ এয়ারলাইন্সের একটি ফ্লাইট (বিজি-১৪৭) জরুরি অবতরণ করে। ছবি: সংগৃহীত

বেসামরিক বিমান ও পর্যটন মন্ত্রণালয় রবিবার রাতে এক প্রেস বিজ্ঞপ্তিতে এ তথ্য জানায়

বিমান বাংলাদেশ এয়ালাইন্সের একটি বিমান ছিনতাইয়ের চেষ্টার ঘটনায় পাঁচ সদস্যের তদন্ত কমিটি গঠন করা হয়েছে।

বেসামরিক বিমান ও পর্যটন মন্ত্রণালয় রবিবার রাতে এক প্রেস বিজ্ঞপ্তিতে জানায়, অতিরক্ত সচিব মো. মোকাব্বির হোসেনকে প্রধান করে এ কমিটির করা হয়েছে।

কমিটির অন্য সদস্যরা হলেন- যুগ্ম সচিব জনেন্দ্র নাথ সরকার, বেসামরিক বিমান চলাচল কর্তৃপক্ষের পরিচালক (ফ্লাইট সেফটি অ্যান্ড রেজুলেশন্স) উইং কমান্ডার চৌধুরী মো. জিয়াউল হক কবীর, বিমান বাংলাদেশ এয়ারলাইন্স লিমিটেডের পরিচালক (পরিকল্পনা) এয়ার কমোডর (অব.) মাহবুব জাহান খান এবং বেসামরিক বিমান চলাচল কর্তৃপক্ষের সিনিয়র সিকিউরিটি কনসালটেন্ট গ্রুপ ক্যাপ্টেন (অব.) মো. আলমগীর।

এ তদন্ত কমিটিকে আগামী পাঁচ কর্মদিবসের মধ্যে প্রতিবেদন দাখিল করতে বলা হয়েছে।

এছাড়াও কমিটিকে সংঘটিত ঘটনার প্রকৃত কারণ উদঘাটন, বিমানবন্দরের নিরাপত্তা ব্যবস্থায় (আন্তর্জাতিক ও অভ্যন্তরীণ) কোনো ত্রুটি ছিল কি না তা চিহ্ণিত করা, নিরাপত্তা বেষ্টনি ভেদ করে কিভাবে অনাকাঙ্ক্ষিত দ্রব্যাদি বহন করা সম্ভব হলো, তা চিহ্নিতকরণ এবং নিরাপত্তার দায়িত্বে নিয়োজিত কেউ জড়িত ছিল কিনা তা চিহ্নিতকরণ এবং এ   ধরনের ঘটনা প্রতিরোধে ও করণীয় বিষয়ে সুপারিশমালা প্রণয়ন করতে বলা হয়েছে।

প্রসঙ্গত, বিমান বাংলাদেশ এয়ারলাইন্সের একটি বিমান ছিনতাই চেষ্টাকালে রবিবার সন্ধ্যায় চট্টগ্রামের শাহ আমানত বিমানবন্দরে যৌথ বাহিনীর অভিযানে সন্দেহভাজন ছিনতাইকারী নিহত হয়েছেন।