• রবিবার, নভেম্বর ১৭, ২০১৯
  • সর্বশেষ আপডেট : ১০:৪৮ রাত

'বিমানের দুর্নীতি নিয়ে জিরো টলারেন্স নীতি'

  • প্রকাশিত ০৫:২৫ সন্ধ্যা মার্চ ৩, ২০১৯
বেসামরিক বিমান পরিবহন ও পর্যটন প্রতিমন্ত্রী মাহমুদ আলী
বেসামরিক বিমান পরিবহন ও পর্যটন প্রতিমন্ত্রী মাহমুদ আলী। ছবি: সংগৃহীত।

'প্রধানমন্ত্রীর নির্দেশে বিমানের দুর্নীতি নিয়ে জিরো টলারেন্স নীতি অবলম্বন করা হবে'

প্রধানমন্ত্রীর নির্দেশে বিমানের দুর্নীতি নিয়ে জিরো টলারেন্স নীতি অবলম্বন করা হবে বলে জানিয়েছেন বেসামরিক বিমান পরিবহন ও পর্যটন প্রতিমন্ত্রী মাহমুদ আলী।

রবিবার সচিবলায়ে দুর্নীতি দমন কমিশনের (দুদক) কমিশনার মোজাম্মেল হক খান বিমান ও সিভিল এভিয়েশনের দুর্নীতির উৎসগুলো কী কী তার একটি সুপারিশ বেসামরিক বিমান পরিবহন ও পর্যটন মন্ত্রণালয়ের প্রতিমন্ত্রী মাহমুদ আলীর কাছে হস্তান্তর করার পর তিনি এসব কথা বলেন।

তিনি বলেন, "আজকে দুদক বিমানকে নিয়ে ৮ দুর্নীতির উৎস এবং সিভিল এভিয়েশন অথরিটির ১১ দুর্নীতির উৎসের যে সুপারিশ করেছে তা আমরা খতিয়ে দেখবো"

এ সময় দুদকের কমিশনার মোজাম্মেল হক খান বলেন, "বিদেশে লাগেজ দ্রুত সময় পেয়ে যায় কিন্তু বাংলাদেশে আসলে এক থেকে দেড় ঘণ্টা সময় লাগে সেটা কেন? তারপর বিমানে টিকেট থাকলেও অনেকে টিকিট পায় না বলেও অভিযোগ রয়েছে। এসব খতিয়ে দেখতে আমার সুপারিশে বলেছি।"