• শুক্রবার, ফেব্রুয়ারি ২৮, ২০২০
  • সর্বশেষ আপডেট : ১১:০২ রাত

‘চাঁদা না পেয়ে’ ছাত্রলীগ নেতাকে পেটালেন আরেক ছাত্রলীগ নেতা!

  • প্রকাশিত ০৬:৪৬ সন্ধ্যা মার্চ ৭, ২০১৯
যশোর ছাত্রলীগ
আহত ছাত্রলীগ নেতা রাশেদ। ছবি: ঢাকা ট্রিবিউন

আহত অবস্থায় তাকে যশোর জেনারেল হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে

যশোর সরকারি এমএম কলেজ পুরনো ছাত্রাবাস শাখা ছাত্রলীগের সভাপতি রাশেদ পারভেজকে বেদম মারপিট করা হয়েছে।

ছাত্রাবাসের ক্যান্টিন থেকে মাসিক চাঁদা না দেওয়ায় জেলা ছাত্রলীগের সভাপতি রওশন ইকবাল শাহী নেতৃত্বে তাকে মারপিট করা হয় বলে অভিযোগ উঠেছে। তবে, মারপিটের কোনও ঘটনা জানেন না বলে দাবি করেছেন অভিযুক্ত শাহী।

সংশ্লিষ্ট সূত্রে জানা গেছে, বৃহস্পতিবার দুপুরে হল থেকে শাহীর বাড়িতে তুলে নিয়ে রাশেদকে বেদম মারপিট করা হয়। আহত অবস্থায় তাকে যশোর জেনারেল হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে।

আহত রাশেদ পারভেজ অভিযোগ করেন, ‘‘রওশন ইকবাল শাহীর অনুসারীরা এমএম কলেজের পুরনো হলের ক্যান্টিন থেকে প্রতিমাসে ৫ থেকে ৭ হাজার করে টাকা নিয়ে যায়। গত ফেব্রুয়ারি মাসের টাকা নিতে এলে তাদের বাধা দেওয়া হয়। আজ (বৃহস্পতিবার) দুপুর দেড়টার দিকে শাহী তিনজনকে পুরনো হলে পাঠান। তারা রাশেদকে জেলা সভাপতি তাদের সঙ্গে যেতে বলেছেন বলে জানান।’ ’

ওই তিনজনের সঙ্গে শাহীর পুরাতন কসবা তেঁতুলতলার বাসভবনে যাওয়ার সঙ্গে সঙ্গে তার চোখ-মুখ বেঁধে ফেলা হয়। এরপর হকিস্টিক, ক্রিকেটের স্ট্যাম্প ও রড দিয়ে তাকে এলোপাথাড়ি মারধর করে নাহিদ, কৌশিক, রিয়াদসহ কয়েকজন। একপর্যায়ে তিনি জ্ঞান হারান, জানান রাশেদ। 

জ্ঞান ফিরলে তিনি নিজেকে হাসপাতালে দেখতে পান। মারধরের সময় শাহী ঘটনাস্থলে উপস্থিত ছিলেন বলেও জানান রাশেদ।

যশোর জেনারেল হাসপাতালের জরুরি বিভাগের ডাক্তার কাজল মল্লিক একই বিভাগের ডা. অমিয় দাসের উদ্ধৃতি দিয়ে সাংবাদিকদের বলেছেন, আহতের অবস্থা শঙ্কামুক্ত।

এ বিষয়ে জানতে চাইলে জেলা ছাত্রলীগের সভাপতি রওশন ইকবাল শাহী ঢাকা ট্রিবিউনকে বলেন, ‘‘এমন কোনও ঘটনা তো জানি না।’ ’

বিষয়টি সম্পর্কে জানতে চাইলে যশোর কোতোয়ালি থানার ওসি অপূর্ব হাসান বলেন, ‘‘এ ঘটনায় কেউ কোনও লিখিত অভিযোগ দেয়নি। অভিযোগ পেলে আইনগত ব্যবস্থা নেওয়া হবে।’ ’