• শুক্রবার, নভেম্বর ১৫, ২০১৯
  • সর্বশেষ আপডেট : ১০:৪৬ রাত

ঝালকাঠিতে স্কুল শিক্ষকের বাল্য বিয়ে!

  • প্রকাশিত ০৫:০৮ সন্ধ্যা মার্চ ২০, ২০১৯
ঝালকাঠি বাল্যবিয়ে
ঝালকাঠিতে বাল্যবিয়ের দায়ে অভিযুক্ত স্কুল শিক্ষক সৌরভ দাস শুভ্র। ছবি: ঢাকা ট্রিবিউন

বিয়ের পরদিন ধর্মীয় রীতি অনুযায়ী কনের বাড়িতে বর-কনের অবস্থান করার কথা থাকলেও বাল্যবিয়ের বিষয়টি জানাজানি হওয়ায় সেদিন সকালেই তারা নলছিটি ছেড়ে চলে যান।

আইনানুযায়ী বাল্যবিয়ে একটি শাস্তিযোগ্য অপরাধ। বিভিন্নভাবে সরকার চেষ্টা করে যাচ্ছে এ কুপ্রথা দূর করতে। সাধারণ মানুষের মধ্যে এ বিষয়ে সচেতনতা দূর করতে শিক্ষকরা রাখতে পারেন অগ্রণী ভূমিকা। কিন্তু আইন ভেঙে ঝালকাঠির এক শিক্ষক নিজেই করেছেন বাল্যবিয়ে! ঘটনাটি ঘটেছে নলছিটি উপজেলার ফেরিঘাট এলাকায়। ১৫ বছর ৩ মাস বয়সী এক কলেজ ছাত্রীকে বিয়ে করেছেন তিনি। 

গত ৭ মার্চ (বৃহস্পতিবার) রাতে নলছিটি ফেরিঘাট এলাকায় একাদশ শ্রেণির শিক্ষার্থী শান্তা দে’র সঙ্গে বরিশালের বাকেরগঞ্জ উপজেলার দক্ষিণ পশ্চিম শিয়ালগুনি সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের সহকারি শিক্ষক সৌরভ দাস শুভ্রর বিয়ের আনুষ্ঠানিকতা সম্পন্ন হয়। 

বিয়ের পরদিন ধর্মীয় রীতি অনুযায়ী কনের বাড়িতে বর-কনের অবস্থান করার কথা থাকলেও বাল্যবিয়ের বিষয়টি জানাজানি হওয়ায় ৮ মার্চ (শুক্রবার) সকালে তারা নলছিটি ছেড়ে চলে যান।

শান্তা দে নলছিটি উপজেলার ফেরিঘাট এলাকার শেখর চন্দ্র দে’র মেয়ে। 

এদিকে, বয়স গোপন করে বাল্যবিয়ের ঘটনায় এলাকায় চাঞ্চল্যের সৃষ্টি হয়েছে।

স্থানীয় সূত্রে জানা গেছে, মেয়েটি অপ্রাপ্ত বয়স্ক হওয়ায় তড়িঘড়ি করে আয়োজন করেন শেখর চন্দ্র দে। বিয়ের অনুষ্ঠানে এলাকার শিক্ষক, জনপ্রতিনিধি, রাজনৈতিক নেতৃবৃন্দসহ নানা শ্রেণি-পেশার লোকজনকে নিমন্ত্রণও করা হয়। এ বাল্যবিয়ের নেপথ্যে ছিলেন দপদপিয়া ইউনিয়ন ডিগ্রী কলেজের অধ্যক্ষ স্বপন কুমার দাস।

শান্তার শিক্ষা প্রতিষ্ঠান সরকারি নলছিটি ডিগ্রী কলেজের ভারপ্রাপ্ত অধ্যক্ষ মো. রফিকুল ইসলাম কবির জানান, মেয়েটি একাদশ শ্রেণির মানবিক বিভাগের শিক্ষার্থী। রোল নম্বর- ২৩৮। এসএসসি সার্টিফিকেট ও ভর্তির সময় কলেজে জমা দেওয়া তথ্যানুযায়ী, শান্তার জন্ম তারিখ ২০০৩ সালের ৮ ডিসেম্বর।

এ বিষয়ে নলছিটি উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা (ইউএনও) মো. আশ্রাফুল ইসলাম ঢাকা ট্রিবিউনকে বলেন, খবর পেয়ে ওই বিয়ে বন্ধ করতে পুলিশ পাঠানো হয়েছিল। এরপরেও যদি বিয়ে সম্পন্ন হয়ে থাকে তাহলে জড়িতদের বিরুদ্ধে আইনগত ব্যবস্থা নেওয়া হবে।

তবে, বাল্যবিয়ের অপরাধে অভিযুক্ত বাকেরগঞ্জের দক্ষিণ পশ্চিম শিয়ালগুনি সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের সহকারি শিক্ষক সৌরভ দাস শুভ্রর কোনও বক্তব্য পাওয়া যায়নি।