• শুক্রবার, ডিসেম্বর ১৩, ২০১৯
  • সর্বশেষ আপডেট : ০৯:১৯ রাত

বাবা পৌর মেয়র, ছেলে উপজেলা চেয়ারম্যান

  • প্রকাশিত ০৬:২৬ সন্ধ্যা মার্চ ২২, ২০১৯
হেলাল উদ্দিন কবিরাজ-আল হাসিবুল হাসান সুরুজ
কাহালু পৌরসভার মেয়র হেলাল উদ্দিন কবিরাজ (বামে) এবং কাহালু উপজেলা চেয়ারম্যান আল হাসিবুল হাসান সুরুজ। ছবি: ঢাকা ট্রিবিউন।

স্থানীয়দের আশা, বাবা ও ছেলে মিলে উপজেলা ও পৌরসভার সার্বিক উন্নয়নে বলিষ্ট ভুমিকা রাখবেন

১৮ মার্চ অনুষ্ঠিত উপজেলা পরিষদ নির্বাচনে বগুড়ার কাহালু উপজেলায় বিদ্রোহী প্রার্থী হিসেবে চেয়ারম্যান নির্বাচিত হয়েছেন জেলা ছাত্রলীগের সাংস্কৃতিক বিষয়ক সম্পাদক আল হাসিবুল হাসান সুরুজ। তার পিতা আওয়ামী লীগের সভাপতি হেলাল উদ্দিন কবিরাজ পরপর দু’বারের নির্বাচিত পৌর মেয়র।

স্থানীয়দের আশা, বাবা ও ছেলে মিলে উপজেলা ও পৌরসভার সার্বিক উন্নয়নে বলিষ্ট ভুমিকা রাখবেন।

জানা যায়, বগুড়ার কাহালু উপজেলায় কবিরাজ পরিবারের ঐতিহ্য ও সুনাম রয়েছে। এ পরিবারের সদস্যরা রাজনৈতিক, সামাজিক, ক্রীড়া ও বিভিন্ন সংগঠনের নেতৃত্বে দিয়ে আসছেন। হেলাল উদ্দিন কবিরাজ ১৯৬০ সালের ৪ সেপ্টেম্বর কবিরাজ পরিবারে জন্মগ্রহণ করেন। ১৯৭৫ সালে স্বপরিবারে বঙ্গবন্ধুকে হত্যার পর আওয়ামী লীগের রাজনীতিতে জড়িয়ে পড়েন। ২০০৪ সাল থেকে এখন পর্যন্ত কাহালু উপজেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি হিসেবে দায়িত্ব পালন করছেন তিনি। 

এদিকে তার একমাত্র ছেলে আল হাসিবুল হাসান সুরুজ ১৯৮৯ সালের ৩০ ডিসেম্বর জন্মগ্রহণ করেন। ২০০৪ সাল থেকে ছাত্রলীগের রাজনীতিতে জড়িত হন। বিএনপি-জামায়াত সরকারের সময় ৬টি মামলার আসামী হন। গত ২০১৬ সালে জেলা ছাত্রলীগের সম্মেলনে সাংস্কৃতিক বিষয়ক সম্পাদক হয়েছেন। সুরুজ এমবিএ পাশ করেছেন। গত ১৮ মার্চ অনুষ্ঠিত কাহালু উপজেলা নির্বাচনে চেয়ারম্যান পদে আওয়ামী লীগ মনোনীত প্রার্থী হন আবদুল মান্নান। সুরুজ বিদ্রোহী প্রার্থী হিসেবে প্রতিদ্বন্দ্বিতা করে চেয়ারম্যান নির্বাচিত হয়েছেন।

কাহালু পৌরসভার মেয়র উপজেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি হেলাল উদ্দিন কবিরাজ ও নব-নির্বাচিত উপজেলা চেয়ারম্যান আল হাসিবুল হাসান সুরুজ ঢাকা ট্রিবিউনকে জানান, আমরা নিজ নিজ অবস্থান থেকে এলাকাবাসীর উন্নয়ন ও সেবা করে যাবো। আপাতত: কার কী পদ সেটা নিয়ে তেমন ভাবনা নেই; আমরা যেন আন্তরিকতার সাথে মানুষের সেবা করতে পারি সেটাই এখন বড় বিষয়।


মো: নাজমুল হুদা নাসিম, বগুড়া