• বুধবার, নভেম্বর ২০, ২০১৯
  • সর্বশেষ আপডেট : ১১:০৯ রাত

১০ দিনের মধ্যে সব ভবনের মালিককে কাগজপত্র দেওয়ার নির্দেশ

  • প্রকাশিত ০৪:৪০ বিকেল মার্চ ২৯, ২০১৯
মেয়র আতিকুল ইসলাম
ছবি: সংগৃহীত

অবৈধ স্থাপনা ভেঙে ফেলতে শিগগিরই আরেকটি অভিযান পরিচালনা করা হবে বলে জানান মেয়র আতিকুল

বনানীর এফআর টাওয়ারে ভয়াবহ অগ্নিকাণ্ডে হতাহতের ঘটনার পর বহুতল ভবনের মালিকদের আগামী ১০ দিনের মধ্যে আনুষঙ্গিক সকল কাগজপত্র দেয়ার নির্দেশ দিয়েছেন ঢাকা উত্তর সিটি করপোরেশনের (ডিএনসিসি) মেয়র আতিকুল ইসলাম।

তিনি বলেন, ভবন মালিক, বিশেষ করে যাদের বহুতল ভবন রয়েছে, তাদের অগ্নিনির্বাপক ও নিরাপত্তা ব্যবস্থা আছে কিনা সে বিষয়ে আনুষঙ্গিক কাগজপত্র অবশ্যই ১০ দিনের মধ্যে জমা দিতে হবে।

ইউএনবির প্রতিবেদনে বলা হয়, শুক্রবার রাজধানীর বনানীতে আগুনে পুড়ে যাওয়া এফআর টাওয়ার পরিদর্শন শেষে সাংবাদিকদের তিনি আরও বলেন, শিগগিরই এ বিষয়ে জনস্বার্থে নোটিশ জারি করা হবে।

মেয়র জানান, নোটিশ দেয়ার পর ম্যাজিস্ট্রেটরা অভিযান শুরু করবেন এবং অগ্নিনির্বাপক ও ভবন নিরাপত্তা ব্যবস্থা যারা নিশ্চিত করতে পারবে না তাদের বিরুদ্ধে আইনি ব্যবস্থা নেওয়া হবে।

তিনি আরও বলেন, অবৈধ স্থাপনা ভেঙে ফেলতে শিগগিরই আরেকটি অভিযান পরিচালনা করা হবে। অবৈধ ভবনের ব্যাপারে আমরা জিরো টলারেন্স দেখাবো। এখন, আমাদের অ্যাকশনে যেতে হবে।

আতিকুল বলেন, এফআর টাওয়ারের অগ্নিকাণ্ডের ঘটনায় ডিএনসিসি গঠিত তদন্ত কমিটি তিন কার্যদিবসের মধ্যে রিপোর্ট জমা দেবে এবং দায়ীদের বিরুদ্ধে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা নেয়া হবে।

ভবন মালিকদের সতর্ক করে মেয়র বলেন, নিরাপত্তার অভাবের কারণে কোনও দুর্ঘটনা ঘটলে তার দায় অবশ্যই ভবন মালিকদের নিতে হবে।

নিরাপদ ভবন নির্মাণে রাজউক ও সিটি করপোরেশনের সমন্বয় নিশ্চিত করার ওপর গুরুত্বারোপ করেন মেয়র।

উল্লেখ্য, বৃহস্পতিবার দুপুরে বনানীতে কামাল আতাতুর্ক এভিনিউয়ে বহুতল ভবন এফআর টাওয়ারে ভয়াবহ আগুনের ঘটনায় অন্তত ২৫ জনের মৃত্যু হয়েছে। আহত হয়ে বিভিন্ন হাসপাতালে চিকিৎসাধীন রয়েছেন অর্ধ-শতাধিক মানুষ। ২২ তলা ভবনটির ৫ম তলায় দুপুর পৌনে ১টার দিকে আগুন লাগে। খবর পেয়ে ফায়ার সার্ভিসের ২০টি ইউনিটের প্রাণপন চেষ্টায় বিকাল পৌনে ৫টার দিকে আগুন নিয়ন্ত্রণে আনা সম্ভব হয়।