• মঙ্গলবার, মে ২১, ২০১৯
  • সর্বশেষ আপডেট : ১১:৩০ সকাল

কুষ্টিয়ায় বখাটেদের নির্যাতনে স্কুলছাত্রীর আত্মহত্যা

  • প্রকাশিত ০৩:৫৩ বিকেল মার্চ ৩১, ২০১৯
শিশুমৃত্যু
প্রতীকী ছবি

অপমান সহ্য করতে না পেরে আত্মহত্যার আগে ওই ছাত্রী তার বাবাকে লেখা এক চিরকুটে বলেন, ‘আব্বু আমাকে তুমি ক্ষমা করে দিও, রাজপাড়ার ছেলেদের কারণেই আজকে আমাকে মারা যেতে হলো’


কুষ্টিয়ার মিরপুর উপজেলায় বখাটেদের নির্যাতনে আত্মহত্যা করেছে নবম শ্রেণীর এক স্কুল শিক্ষার্থী। 

বৃহস্পতিবার (২৮ মার্চ) দুপুর আড়াইটার দিকে  গলায় ফাঁস দিয়ে আত্মহত্যা করে ওই শিক্ষার্থী।  মৃত্যুর আগে মা-বাবার কাছে একটি চিরকুটে লিখে রেখে যায় অভিযুক্তকারীদের নাম।

এদিকে আত্মহত্যা করার আগে বাবা-মায়ের কাছে শেষবারের মতো ক্ষমা চেয়ে একটি চিরকুট লেখে ওই ছা্ত্রী। চিরকুটটিতে ছাত্রী বলেন, “আব্বু আমাকে তুমি ক্ষমা করে দিও।রাজপাড়ার ছেলেদের কারণেই আজকে আমাকে মারা যেতে হলো।” 

নিহতের চাচা, হাসেম আলীর দাবী,  “অভিযুক্ত জয়নাল মিরপুর উপজেলার মধ্যবর্তী কাতলমারি রাজপাড়া এলাকার বাসিন্দা। সে এর আগেও নানা সময় ওই শিক্ষার্থীকে উত্যক্ত করে বলেও বাড়িতে জানিয়েছে ভূক্তভোগী।”

তিনি জানান, “গত শুক্রবার তার মেয়ের বিয়ের জন্য ফুল কিনতে যা্য় নিহত ওই স্কুল ছাত্রী। এসময় তাকে অভিযুক্ত জয়নাল জে্ার করে নিয়ে যেতে চাইলে খবর পেয়ে পুলিশ ক্যাম্পের ইনচার্জ এএসআই আশরাফ ওই ছাত্রীকে উদ্ধার করে স্থানীয় মহিলা ইউপি সদস্য রেজেলা খাতুনের কাছে হস্তান্তর করেন। পরবর্তীতে ইউপি সদস্যের সাথে আমলা থেকে তার নিজ বাড়ী কাতলামারীতে আসার সময় গাড়িটি আটকে নিহত শিক্ষার্থীকে তুলে নিয়ে যায়। এরপর বাড়িতে ফিরে অপমান সহ্য করতে না পেরে আত্মহত্যা করে তার ভাতিজি।”

এ ব্যাপারে মিরপুর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি তদন্ত) আব্দুল আলিম জানান, “এ ঘটনায় মিরপুর থানায় অপহরণ ও আত্মহত্যা প্ররোচণার অভিযোগে ৫ জনের বিরুদ্ধে একটি মামলা দায়ের হয়েছে। দোষীদের আটকের চেষ্টা চলছে।”