• বৃহস্পতিবার, মে ২৩, ২০১৯
  • সর্বশেষ আপডেট : ১০:৫৫ রাত

ডিএনসিসি মার্কেটে আগুন : সন্দেহের তীরে মেট্রো গ্রুপ

  • প্রকাশিত ০৫:৩৮ সন্ধ্যা মার্চ ৩১, ২০১৯
গুলশান ১ নম্বরের ঢাকা উত্তর সিটি করপোরেশনের (ডিএনসিসি) পাশে কাঁচাবাজারে শনিবার ভোরে অগ্নিকাণ্ডের ঘটনা ঘটে। ছবি : সৈয়দ জাকির হোসেন/ ঢাকা ট্রিবিউন
গুলশান ১ নম্বরের ঢাকা উত্তর সিটি করপোরেশনের (ডিএনসিসি) পাশে কাঁচাবাজারে শনিবার ভোরে অগ্নিকাণ্ডের ঘটনা ঘটে। ছবি : সৈয়দ জাকির হোসেন/ ঢাকা ট্রিবিউন

যোগাযোগের চেষ্টা করা হলেও মেট্রো গ্রুপের কোনো কর্মকর্তাকে পাওয়া যায়নি।

রাজধানীর গুলশান-১ নম্বরে ঢাকা উত্তর সিটি করপোরেশন (ডিএনসিসি) মার্কেটে অগ্নিকাণ্ডের ঘটনায় অভিযোগের আঙুল উঠেছে মেট্রো গ্রুপ নামের একটি প্রতিষ্ঠানের দিকে। গতকাল শনিবার লাগা এই আগুনে ক্ষয়ক্ষতির পরিমাণ ছিলো ১০০ কোটি টাকা। 

জানা গেছে, ডিএনসিসি মার্কেটের জমির ওপর নতুন স্থাপনা নির্মাণের লক্ষ্যে ২০১০ সালে টেন্ডার ছাড়ে কর্তৃপক্ষ। সেই টেন্ডার পায় মেট্রো গ্রুপ। ডিএনসিসি মার্কেটের ব্যবসায়ীদের অভিযোগ, সে সময় টেন্ডার ছাড়ার আগে তাদের সঙ্গে আলোচনা করেনি ডিএনসিসি কর্তৃপক্ষ। । 

তবে শুধু গতকালের অগ্নিকাণ্ডের ঘটনাই না, ২০১৭ সালে একই মার্কেটে অগ্নিকাণ্ডের জন্যও মেট্রো গ্রুপকে দায়ী করেছে ব্যবসায়ীরা। দুই বছর আগে ঘটা ওই আগুনে ক্ষতি হয় ৫০০ কোটি টাকা। 

ডিএনসিসি কিচেন মার্কেটের দোকান মালিক সমিতির সভাপতি দ্বীন মোহাম্মদ জানান, ডিএনসিসি মার্কেটের সাড়ে সাত বিঘা জমির ওপর নতুন বহুতল ভবন নির্মাণের বিরোধিতা করছেন না তারা। তবে তাদের সন্দেহ গতকালের আগুনের পেছনে হাত রয়েছে মেট্রো গ্রুপের। কারণ, বহুতল মার্কেট নির্মাণের পর সেখানে বর্তমান মার্কেটের ব্যবসায়ীদের দোকান বরাদ্দ দেওয়া হবে কিনা তা জানায়নি প্রতিষ্ঠানটি। 

মার্কেটের আরেক দোকানমালিক মো. আবু বক্কর জানান, শনিবার ভোরে অগ্নিকাণ্ড মেট্রো গ্রুপের পরিকল্পনার ফল। দোকান মালিকদের পক্ষ থেকে প্রস্তাবিত ভবনে দোকান বরাদ্দ নিয়ে মেট্রোকে বার বার বলা হয়েছে। কিন্তু কোনো ফল আসেনি। 

তবে এ বিষয়ে কথা বলতে যোগাযোগের চেষ্টা করা হলেও মেট্রো গ্রুপের কোনো কর্মকর্তাকে পাওয়া যায়নি।

এর আগে গতকাল ক্ষমতাসীন আওয়ামী লীগের যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক মাহবুব উল আলম হানিফ বলেন, ডিএনসিসি মার্কেটকে অত্যাধুনিক শপিং মলে পরিণত করা হবে। এ বিষয়ে কিচেন মার্কেটের সভাপতি ও সাধারণ সম্পাদকও তাদের সহায়তা করছেন বলে জানান তিনি।