• শুক্রবার, সেপ্টেম্বর ২০, ২০১৯
  • সর্বশেষ আপডেট : ০৯:৫৫ সকাল

অন্য থানায় গিয়ে ছিনতাইয়ের চেষ্টা, পুলিশ কনস্টেবল আটক

  • প্রকাশিত ১০:০৯ রাত এপ্রিল ৩, ২০১৯
পুলিশ
প্রতীকী ছবি

ফেন্সিডিল আছে দাবি করে টাকার ব্যাগ ছিনিয়ে নেওয়ার চেষ্টা করেন অভিযুক্ত কনস্টেবল।

জয়পুরহাটের ক্ষেতলাল উপজেলার বটতলী এলাকায় এক ব্যবসায়ীর কাছ থেকে ৮ লাখ টাকা ছিনতাই চেষ্টার অভিযোগে পাঁচবিবি থানার এক পুলিশ কনস্টেবলকে আটক করে থানায় দিয়েছে জনতা। আটক পুলিশ সদস্যের নাম মুহিদুল ইসলাম। তিনি সাদা পোশাকে কালাই থানার এক পোল্ট্রি ব্যবসায়ীর টাকা ছিনতাইয়ের চেষ্টা করছিলেন বলে অভিযোগ উঠেছে।

বুধবার সন্ধ্যায় ক্ষেতলাল থানার বটতলী বাজার এলাকায় এ ঘটনা ঘটে। থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা শাহরিয়ার খান ঢাকা ট্রিবিউনকে এ তথ্য নিশ্চিত করেছেন। 

প্রত্যক্ষদর্শী ও থানা সূত্রে জানা গেছে, ব্যবসা প্রতিষ্ঠানের এক কর্মচারীকে নিয়ে জয়পুরহাট শহরের ইসলামী ব্যাংক থেকে ৮ লাখ টাকা তুলে মোটর সাইকেলযোগে কর্মস্থলে ফিরছিলেন কালাই উপজেলার পুনট বাজারের পোল্ট্রি ব্যবসায়ী খালেক। পথিমধ্যে ক্ষেতলাল উপজেলার বটতলী সেতু এলাকায় পৌঁছালে মোটর সাইকেল করে তাদের গতিরোধ করেন পাঁচবিবি থানার পুলিশ কনস্টেবল মুহিদুল।

এ সময় কনস্টেবল মুহিদুল ফেন্সিডিল আছে দাবি করে তাদের কাছ থেকে টাকার ব্যাগ ছিনিয়ে নেওয়ার চেষ্টা করেন। খবর পেয়ে বটতলী বাজার থেকে লোকজন এসে মুহিদুলকে আটক করে ক্ষেতলাল থানায় সোপর্দ করে বলে জানান ভুক্তভোগী ব্যবসায়ী।

এ বিষয়ে ক্ষেতলাল থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা শাহরিয়ার খান ঢাকা ট্রিবিউনকে বলেন, ‘‘ব্যবসায়ীর টাকা ছিনতাই চেষ্টার অভিযোগ পেয়ে বটতলী বাজার থেকে পাঁচবিবি থানার পুলিশ কনস্টেবল মুহিদুলকে আটক করা হয়েছে। ছিনতাইয়ের কবল থেকে রক্ষা পাওয়া ব্যবসায়ীর পক্ষ থেকে রাত ৮টা পর্যন্ত অভিযোগ পাওয়া যায়নি। অভিযোগ পেলে আইনগত ব্যবস্থা নেওয়া হবে।’’

মামলা না হলেও তার বিরুদ্ধে ওঠা অভিযোগ প্রমাণিত হলে বিভাগীয় ব্যবস্থা নেওয়া হবে বলে জানান ওসি।

এদিকে, অভিযুক্ত কনস্টেবলের কর্মস্থল পাঁচবিবি থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা বজলার রহমান ঢাকা ট্রিবিউনকে বলেন, ‘‘মুহিদুল পাঁচবিবি থানায় কর্মরত। থানায় কাউকে কিছু না জানিয়েই সে বাইরে চলে যায়। বিষয়টি উর্ধ্বতন কর্তৃপক্ষকে জানানো হয়েছে। অপরাধ প্রমাণিত হলে তার বিরুদ্ধে বিভাগীয় শাস্তিমূলক ব্যবস্থা নেওয়া হবে।’’