• রবিবার, মে ২৬, ২০১৯
  • সর্বশেষ আপডেট : ০৮:৫৭ রাত

হাইকমিশনার: সোনালী অধ্যায় অতিক্রম করছে বাংলাদেশ-ভারত সম্পর্ক

  • প্রকাশিত ০৮:৩৩ রাত এপ্রিল ৫, ২০১৯
ভারতীয় হাইকমিশনার
শুক্রবার মৌলভীবাজারের কমলগঞ্জ উপজেলার তিলকপুর সার্বজনীন পূজা মন্দির ও মণ্ডপ এর নবনির্মিত দ্বিতল ভবনের উদ্বোধন করেন ভারতীয় হাইকমিশনার। ছবি: ঢাকা ট্রিবিউন

তিনি বলেন, সিলেট বিভাগে বহু ভাষাভাষী মানুষজনের বসবাস। তাদের রয়েছে ঐতিহ্যবাহী নিজস্ব সংস্কৃতি।

বাংলাদেশে নিযুক্ত ভারতীয় হাইকমিশনার রীভা গাঙ্গুলী দাশ বলেছেন, বাংলাদেশ-ভারত সম্পর্ক একটা সোনালী অধ্যায় অতিক্রম করছে। সিলেট বিভাগ বাংলাদেশের গুরুত্বপূর্ণ স্থান। সিলেটের সঙ্গে ভারতের আসাম, মেঘালয় ও ত্রিপুরার সীমান্ত রয়েছে। এই তিন রাজ্যের সঙ্গে সিলেটের ভাষা, সংস্কৃতি ও সামাজিকতার সুনিবিড় সম্পর্ক রয়েছে। ফলে প্রয়োজনীতা উপলব্ধি করেই সিলেটে একটি ভারতীয় ভিসা কেন্দ্র চালু করা হয়েছে। 

শুক্রবার দুপুরে ভারতীয় অর্থায়নে মৌলভীবাজারের কমলগঞ্জ উপজেলার তিলকপুর সার্বজনীন পূজা মন্দির ও মণ্ডপ এর নবনির্মিত দ্বিতল ভবনের উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথির বক্তব্যে তিনি এসব কথা বলেন।

তিনি বলেন, সিলেট বিভাগে বহু ভাষাভাষী মানুষজনের বসবাস। তাদের রয়েছে ঐতিহ্যবাহী নিজস্ব সংস্কৃতি। এ সংস্কৃতির সুষ্ঠু বিকাশে ভারত সহযোগিতার হাত বাড়িয়ে আসছে। সেই ধারাবাহিকতায় ভারতীয় হাই কমিশন কমলগঞ্জে কয়েকটি কমপ্লেক্স নির্মাণ করে দিয়েছে। 

তিলকপুর সার্বজনীন পূজা মন্দির ও মণ্ডপ কমিটির সভাপতি, প্রাক্তন প্রধান শিক্ষক ছালিয়া সিংহের সভাপতিত্বে ও মানবিকা সিনহার সঞ্চালনায় অনুষ্ঠানে বিশেষ অতিথি ছিলেন সিলেটে নিযুক্ত ভারতীয় সহকারী হাইকমিশনার এল কৃষ্ণমূর্তি, আলীনগর ইউপি চেয়ারম্যান ফজলুল হক বাদশা, কমলগঞ্জ থানার অফিসার ইনচার্জ মো. আরিফুর রহমান, মণিপুরী সমাজকল্যাণ সমিতির সভাপতি আনন্দ মোহন সিনহা প্রমুখ। 

স্বাগত বক্তব্য রাখেন তিলকপুর চাকুরীজীবি সার্বজনীন পূজা উদযাপন পরিষদের সাধারণ সম্পাদক প্রধান শিক্ষক স্বপন কুমার সিংহ। 

অনুষ্ঠান শেষে ভারতীয় হাইকমিশনারের সম্মানে মণিপুরী শিল্পীদের এক সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠানের আয়োজন করা হয়।