• বুধবার, জুলাই ১৭, ২০১৯
  • সর্বশেষ আপডেট : ০৭:৩৬ রাত

সাভারে চাকরির প্রলোভন দেখিয়ে গৃহকর্মীকে গণধর্ষণ

  • প্রকাশিত ১২:৪৬ দুপুর এপ্রিল ১০, ২০১৯
ধর্ষণ
প্রতীকী ছবি।

এ ঘটনায় জড়িত সন্দেহে অভিযান চালিয়ে ৫ জনকে আটক করেছে পুলিশ

সাভারের রাজবাড়ি এলাকায় এক গৃহকর্মীকে চাকরির প্রলোভনে দেখিয়ে ডেকে নিয়ে গণধর্ষণের ঘটনা ঘটেছে। এ ঘটনায় জড়িত সন্দেহে অভিযান চালিয়ে ৫ জনকে আটক করেছে পুলিশ। 

মঙ্গলবার (১০ এপ্রিল) অভিযুক্তদের আদালতের মাধ্যমে কারাগারে পাঠানো হয়েছে বলে জানিয়েছেন সাভার মডেল থানার অফিসার ইনচার্জ (ওসি) এফ এম সায়েদ।

এরআগে, ওই ভুক্তভোগী নারী বাদী হয়ে সাভার মডেল থানায় ধর্ষণের অভিযোগ এনে ৫ জনের নাম উল্লেখ করে একটি মামলা দায়ের করেন।

মামলার এজাহার সূত্রে জানা গেছে, “এক নারী সাভার পৌর এলাকার গেন্ডায় বিভিন্ন বাসা বাড়িতে কাজ করতেন। তারই সুবাধে ওই নারীর সাথে গেন্ডার বাসিন্দা মিরাজ সরদারের পরিচয় হয়। এক পর্যায়ে মিরাজ সরদার ওই নারীকে গার্মেন্টসে চাকরি দেওয়ার কথা বলে কৌশলে গত ১০ মার্চ  তার বন্ধু রাজাবাড়ি এলাকার ফুলবাগানের বাসিন্দা মোক্তার হোসেনের ভাড়া বাড়িতে  নিয়ে যায়। সেখানে আগে থেকেই অপেক্ষাকৃত ৪/৫ জন বন্ধু উপস্থিত ছিল। এসময় ওই নারী বাসা থেকে চলে আসতে চাইলে তারা জোরপূর্বকভাবে আটকিয়ে তাকে পালাক্রমে ধর্ষণ করে।”

অভিযুক্তরা হলেন- রাজবাড়ী জেলার গোয়ালন্দ থানার টংগাপাড়া গ্রামের আজাহার সরদারের ছেলে মিরাজ সরদার (৩২), কুড়িগ্রাম জেলার রাজারহাট থানার পীর মাহমুদ গ্রামের বাবুল হোসেনের ছেলে মোক্তার হোসেন (২৯), গাইবান্ধা জেলার সুন্দরগঞ্জ থানার শান্তিরাম গ্রামের মৃত নুরুল হকের ছেলে মাহবুব (৪২), বরিশাল জেলার আগৈলঝাড়া থানার সুবিহার গ্রামের আক্কাস আলী গোমস্তার ছেলে মোঃ মতি গোমস্তা (৫৫) এবং কুড়িগ্রাম জেলার উলিপুর থানার খামারটগরপুর গ্রামের মোঃ জয়নাল আবেদিনের ছেলে মোঃ রফিকুল ইসলাম (২৪)।

ওসি জানান, নির্যাতনের শিকার ওই গৃহবধূকে স্বাস্থ্য পরীক্ষার জন্য ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের ওয়ান স্টপ ক্রাইসিস সেন্টারে (ওসিসি) পাঠানো হয়েছে।