• সোমবার, এপ্রিল ০৬, ২০২০
  • সর্বশেষ আপডেট : ০১:২৪ দুপুর

টিআইবি: ভিআইপিদের তল্লাশি শিথিলের অনুরোধ অসাংবিধানিক ও বৈষম্যমূলক

  • প্রকাশিত ১১:৫৮ সকাল এপ্রিল ১২, ২০১৯
হযরত শাহজালাল আন্তর্জাতিক বিমানবন্দর
হযরত শাহজালাল আন্তর্জাতিক বিমানবন্দর। ফাইল ছবি। ঢাকা ট্রিবিউন

"বিশ্বের যে কোনো বিমানবন্দরে এর চাইতেও কঠোর নিরাপত্তা তল্লাশির ভেতর দিয়ে কোনো প্রকার বৈষম্য ব্যতিরেকে সকল যাত্রীকে যাতায়াত করতে হয়"

দেশের বিমানবন্দরসমূহে সাংসদসহ ভিআইপিদের ক্ষেত্রে নিরাপত্তা তল্লাশি শিথিল করতে বেসামরিক বিমান পরিবহন ও পর্যটন মন্ত্রণালয় সম্পর্কিত সংসদীয় স্থায়ী কমিটির অনুরোধ অসাংবিধানিক ও বৈষম্যমূলক উল্লেখ করে তা অগ্রাহ্য করার আহ্বান জানিয়েছে ট্রান্সপারেন্সি ইন্টারন্যাশনাল বাংলাদেশ (টিআইবি)।  

বৃহস্পতিবার (১১ এপ্রিল) এক বিবৃতিতে টিআইবি’র নির্বাহী পরিচালক ড. ইফতেখারুজ্জামান এ আহ্বান জানান।

তিনি বলেন, "সংসদীয় স্থায়ী কমিটির প্রস্তাবে আমরা উদ্বিগ্ন। কারণ এ ধরনের প্রস্তাব সংবিধানের সুস্পষ্ট লঙ্ঘন, বৈষম্যমূলক ও ক্ষমতার অপব্যবহারের শামিল।"

টিআইবি মনে করে, জনগণের প্রতিনিধি হিসেবে সংসদ সদস্যরা এমনিতেই নানাবিধ সাংবিধানিক প্রাধিকার ও সরকারি সুযোগ-সুবিধা ভোগ করে থাকেন। এর বাইরে বিমানবন্দরের মতো স্পর্শকাতর স্থাপনায় নিরাপত্তা তল্লাশির ক্ষেত্রে তাদের শিথিলতা প্রদান করা হলে তা যেমন অসাংবিধানিক হবে তেমনি এই ধরনের অনৈতিক সুবিধা প্রদানের উদ্যোগ গণতান্ত্রিক চর্চার জন্য আত্মঘাতীমূলক। 

"তাই সরকার এ ধরনের অনিয়মকে কোনোভাবেই উৎসাহিত করবে না, আমরা এই প্রত্যাশা করি", বলেন তিনি।

ড. ইফতেখারুজ্জামান আরও বলেন, নিরাপত্তা তল্লাশির ক্ষেত্রে যাতে গুরুত্বপূর্ণ ব্যক্তিদের বিব্রতকর পরিস্থিতিতে পড়তে না হয়, এই যুক্তিতে ভিআইপিদের জন্য শৈথিল্যের এ অনায্য প্রস্তাব গৃহীত হলে তা বিমানবন্দরের নিরাপত্তা ব্যবস্থাপনায় আন্তর্জাতিক নিয়মকানুনের সাথে সাংঘর্ষিক হবে।

সংসদ সদস্যসহ গুরুত্বপূর্ণ ব্যক্তিরা যখন বিশ্বের অন্যান্য বিমানবন্দর দিয়ে ভ্রমণ করেন তখনও এ ধরনের শিথিলতার সুযোগ প্রত্যাশা করেন কিনা প্রশ্ন রাখেন তিনি।

ড. ইফতেখারুজ্জামান বলেন, "বিশ্বের যে কোনো বিমানবন্দরে এর চাইতেও কঠোর নিরাপত্তা তল্লাশির ভেতর দিয়ে কোনো প্রকার বৈষম্য ব্যতিরেকে সকল যাত্রীকে যাতায়াত করতে হয়।"

‘বাংলাদেশের গুরুত্বপূর্ণ ব্যক্তিরা যদি সেসব বিমানবন্দরে নিরাপত্তা তল্লাশির ক্ষেত্রে শিথিলতা না পান, তাহলে দেশের বিমানবন্দরে এই ধরনের সুবিধা প্রত্যাশা করা যেমন ক্ষমতার অপব্যবহার, তেমনি বৈষম্যমূলক মানসিকতার পরিচায়ক।’

‘সম্পূর্ণ নির্দ্বিধায়’ সংসদীয় কমিটির এ প্রস্তাব প্রত্যাখ্যান করার জন্য সরকারের প্রতি আহ্বান জানান টিআইবি নির্বাহী পরিচালক।

উল্লেখ্য, গণমাধ্যমে প্রকাশিত সংবাদ অনুযায়ী গত ৭ এপ্রিল বেসামরিক বিমান পরিবহন ও পর্যটন মন্ত্রণালয় সম্পর্কিত সংসদীয় স্থায়ী কমিটির বৈঠকে দেশের বিমানবন্দরসমূহে সংসদ সদস্যসহ গুরুত্বপূর্ণ ব্যক্তিদের জন্য নিরাপত্তা তল্লাশি শিথিলের অনুরোধ জানান কমিটির এক সদস্য। পরে কমিটির সব সদস্য একমত হয়ে বিষয়টি বিবেচনার জন্য সংশ্লিষ্ট মন্ত্রণালয়ে প্রস্তাব পেশ করেন।