• বৃহস্পতিবার, ডিসেম্বর ১২, ২০১৯
  • সর্বশেষ আপডেট : ১০:১৮ রাত

নুসরাত হত্যা: আসামি রানা ও মামুনের ১০ দিনের রিমান্ড চেয়েছে পিবিআই

  • প্রকাশিত ০৯:২১ রাত এপ্রিল ২১, ২০১৯
নুসরাত জাহান রাফি
নুসরাত জাহান রাফি। ছবি: সংগৃহীত

নুসরাত হত্যা মামলায় এ পর্যন্ত মোট ২১ জনকে গ্রেফতার করেছে পুলিশ ও পিবিআই

ফেনীর সোনাগাজী ইসলামিয়া ফাজিল মাদ্রাসার ছাত্রী নুসরাত জাহান রাফিকে কেরোসিন ঢেলে পুড়িয়ে হত্যার ঘটনায় জড়িত ইফতেখার উদ্দিন রানা ও এমরান হোসেন মামুনকে জিজ্ঞাসাবাদের জন্য ১০ দিনের রিমান্ড চেয়েছে পুলিশ ব্যুরো অব ইনভেস্টিগেশন (পিবিআই)।

রবিবার বিকাল সাড়ে তিনটার দিকে সিনিয়র জুডিশিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট শরাফত উদ্দিনের আদালতে  তাদেরকে আনা হয়। এই আদালতে তাদের রিমান্ড আবেদনের শুনানি হবে। ফেনীর পিবিআইয়ের অতিরিক্ত বিশেষ পুলিশ সুপার মোহাম্মদ মনিরুজ্জামান এই তথ্য জানিয়েছেন।

তিনি বলেন, "শুক্রবার গভীর রাতে রাঙ্গামাটি শহরের টিঅ্যান্ডটি আবাসিক কোয়ার্টার থেকে ইফতেখার উদ্দিন রানা ও শনিবার বিকাল চারটার দিকে কুমিল্লার চৌদ্রগ্রাম উপজেলা থেকে এমরান হোসেনকে গ্রেফতার করা হয়"।

এ বিষয়ে চট্টগ্রাম পিবিআই পরিদর্শক সন্তোষ কুমার চাকমা জানান, "তদন্তে ইফতেখার উদ্দিন রানার নাম উঠে আসে। এর প্রেক্ষিতে অভিযান চালিয়ে তাকে গ্রেফতার করা হয়। এমরান হোসেন মামুন ফেনী সরকারি কলেজের শিক্ষার্থী এবং সোনাগাজী ইসলামিয়া ফাজিল মাদ্রাসার সাবেক ছাত্র"।

উল্লেখ্য, মর্মান্তিক এই ঘটনায় অগ্নিদগ্ধ নুসরাত টানা পাঁচ দিন মৃত্যুর সঙ্গে লড়ে গত ১০ এপ্রিল রাত সাড়ে ৯টায় ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের বার্ন ইউনিটে মারা যান। পরদিন সকালে ময়নাতদন্ত শেষে মরদেহ স্বজনদের বুঝিয়ে দেওয়া হয়। পরবর্তীতে সোনাগাজী পৌরসভার উত্তর চরচান্দিয়া গ্রামের পারিবারিক কবরস্থানে নুসরাতকে দাফন করা হয়।

চাঞ্চল্যকর এই হত্যা মামলায় এই নিয়ে মোট ২১ জনকে গ্রেফতার করেছে পুলিশ ও পিবিআই।