• বুধবার, ফেব্রুয়ারি ১৯, ২০২০
  • সর্বশেষ আপডেট : ১১:১৫ রাত

পাকিস্তানি কিশোরীকে ধর্ষণ মামলার প্রধান আসামি গ্রেফতার

  • প্রকাশিত ০৬:৪০ সন্ধ্যা এপ্রিল ২৩, ২০১৯
পাকিস্তানি কিশোরীকে ধর্ষণ মামলার প্রধান আসামি গ্রেফতার
টাঙ্গাইলে পাকিস্তানি কিশোরীকে ধর্ষণ মামলার প্রধান আসামিকে কুড়িগ্রাম থেকে গ্রেফতার করে র‍্যাব। ছবি: ঢাকা ট্রিবিউন

তার প্রেমের প্রস্তাবে সাড়া না দেওয়ায় ওই কিশোরীকে অপহরণ ও ধর্ষণ করা হয়।

টাঙ্গাইলে পাকিস্তানি কিশোরীকে ধর্ষণের ঘটনায় হওয়া মামলার প্রধান আসামি আল আমিন (২০)-কে গ্রেফতার করেছে র‌্যাব।

গোয়েন্দা তথ্যের ভিত্তিতে কুড়িগ্রাম জেলার রাজিবপুর থানার পঞ্চনগর গ্রামে মঙ্গলবার (২৩ এপ্রিল) দুপুরে অভিযান চালিয়ে তাকে গ্রেফতার করা হয়। অভিযুক্ত আল আমিন টাঙ্গাইলের গোপালপুরের আবুল হোসেনের ছেলে। 

এদিন বিকেলে সিরাজগঞ্জের সলঙ্গা থানার হাটিকুমরুলের সদর দফতরে এক প্রেস ব্রিফিংয়ে এ তথ্য জানায় র‍্যাব-১২।

প্রেস ব্রিফিং-এ র‌্যাব জানায়, ২০ বছর আগে আল আমিনের এক নিকটাত্মীয় চাকরির সুবাদে পাকিস্তানে প্রবাসী থাকাকালে সেদেশের এক নারীকে বিয়ে করেন। ওই দম্পতির ঘরে জন্ম নেয় এক কন্যা সন্তান।

মাস পাঁচেক আগে ওই পাকিস্তানি নারী তার মেয়েকে নিয়ে টাঙ্গাইলের গোপালপুরে ভাসুরের বাড়িতে বেড়াতে আসেন। সেখানে অবস্থানকালে ওই নারীর ভাসুরের নিকটাত্মীয় আবুল হোসেনের ছেলে মো. আল-আমিন (২০) ওই কিশোরীকে প্রেমের প্রস্তাব দেয়। 

র‍্যাব আরও জানায়, আল-আমিনের প্রস্তাবে সাড়া না দেওয়ায় গত ১৬ এপ্রিল আল-আমিন ও তার সহযোগীরা মেয়েটিকে অপহরণ করে এবং তার ওপর শারীরিক নির্যাতন চালায়। অপহৃতকে পরদিন জামালপুরের সরিষাবাড়ী উপজেলার মহিষাকান্দি থেকে উদ্ধার করা হয়। 

এ ঘটনায় নির্যাতিতার মা বাদী হয়ে ১৭ এপ্রিল টাঙ্গাইলের গোপালপুর থানায় নারী ও শিশু নির্যাতন দমন আইনে মামলা করেন। পুলিশের পাশাপাশি র‌্যাব-১২ মামলাটির তদন্ত শুরু করে। 

অবশেষে কুড়িগ্রামের রাজিবপুরের পঞ্চনগর গ্রাম অভিযান চালিয়ে আল-আমিনকে গ্রেফতার করে র‌্যাব।

র‌্যাব-১২ এর অধিনায়ক লেফটেন্যান্ট কর্নেল আবদুল্লাহ মোমেন, পিপিএম ও সিরাজগঞ্জের ক্যাম্প কমান্ডার এসএসপি প্রণব কুমার সরকার প্রেস ব্রিফিংয়ে উপস্থিত ছিলেন।