• শুক্রবার, সেপ্টেম্বর ২০, ২০১৯
  • সর্বশেষ আপডেট : ০৯:৫৫ সকাল

প্রধানমন্ত্রী: সন্ত্রাস-জঙ্গিবাদ কখনও কোনও কল্যাণ বয়ে আনতে পারে না

  • প্রকাশিত ০৯:১৩ রাত এপ্রিল ২৪, ২০১৯
প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা
প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা বুধবার (২৪ এপ্রিল) জাতীয় সংসদে একাদশ জাতীয় সংসদের দ্বিতীয় অধিবেশনের শুরুতে শোক প্রস্তাবে দাঁড়িয়ে নিরবতা পালন ও মোনাজাত করেন। ফোকাস বাংলা

"ইসলাম ধর্মের নামে যারা জঙ্গিবাদ ও সন্ত্রাস করে তারা আমাদের এই পবিত্র ধর্মের পবিত্রতাকে সকল মানবজাতির কাছে হেয় প্রতিপন্ন করে দিচ্ছে"

সন্ত্রাস-জঙ্গিবাদ কখনও মানুষের জন্য কোনও কল্যাণ বয়ে আনতে পারে না উল্লেখ করে প্রধানমন্ত্রী বলেছেন, দেশবাসীর প্রতি আহ্বান থাকবে এ ধরনের সন্ত্রাস-জঙ্গিবাদ থেকে সকলে যেন দূরে থাকে। এ ধরনের ঘৃণ্য কাজের সঙ্গে কোনও মানুষ যেন জড়িত না হয়। আমরা চাই না এ ধরনের সন্ত্রাসী ঘটনা পৃথিবীর কোথাও ঘটুক।

তিনি বলেন, সন্ত্রাসী ও জঙ্গিদের কোনও দেশ ও ধর্ম নেই মন্তব্য করে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা বলেছেন, জঙ্গি জঙ্গিই; সন্ত্রাসী সন্ত্রাসীই। যারা সন্ত্রাসী-জঙ্গি তাদের কোনও ধর্ম নেই। কোনও দেশ-কাল-পাত্র নেই।

বুধবার (২৪ এপ্রিল) জাতীয় সংসদের প্রশ্নোত্তর পর্বের শুরুতে শ্রীলঙ্কায় সন্ত্রাসী হামলার ঘটনার প্রসঙ্গ তুলে সংসদ প্রধানমন্ত্রী এসব কথা বলেন। এর আগে স্পিকার ড. শিরীন শারমিন চৌধুরীর সভাপতিত্বে প্রধানমন্ত্রীর প্রশ্নোত্তর অনুষ্ঠিত হয়।

প্রধানমন্ত্রী সংসদ সদস্যদের প্রশ্নের জবাব দিতে যাওয়ার আগেই শ্রীলঙ্কার সন্ত্রাসী হামলা নিয়ে কথা বলেন।

শ্রীলঙ্কায় বোমা হামলায় আওয়ামী লীগের সিনিয়র নেতা ও সংসদ সদস্য শেখ ফজলুল করিম সেলিমের নাতি জায়ান চৌধুরী নিহতের ঘটনা তুলে ধরে শেখ হাসিনা বলেন, শ্রীলঙ্কায়  তিনটি হোটেল ও তিনটি গির্জায় সিরিজ বোমা হামলা এবং পরবর্তীতে আরও দুটি জায়গায় বোমা হামলা হয়। সেখানে এ পর্যন্ত ৪০ জন শিশুসহ ৩২৭ জনের মতো মানুষ মারা গেছে। আরও মৃত্যুর খবর আসছে। অনেকে আহত অবস্থায় মৃত্যুর সঙ্গে পাঞ্জা লড়ছে। এই ঘটনায় আমাদের সাবেক স্বাস্থ্যমন্ত্রী ও সংসদীয় কমিটির চেয়ারম্যান শেখ ফজলুল করিমের সেলিমের কন্যা সোনিয়ার বড় ছেলে জায়ান চৌধুরী মৃত্যুবরণ করেছে। সোনিয়ার স্বামী আহত অবস্থায় মৃত্যুর সঙ্গে পাঞ্জা লড়ছে।

জায়ানের আত্মার মাগফিরাত কামনা করে তিনি বলেন, জায়ান চৌধুরী একটি ছোট বাচ্চা। মাত্র ৮ বছর বয়স। আজকে সে আমাদের মাঝে নেই। তার বাবাও মৃত্যুশয্যায়। তাকে এখনো জানতে দেওয়া হয়নি যে জায়ান নেই। সে বার বার খুঁজছে। তার মা বা পরিবারের অবস্থা আপনারা বুঝতেই পারেন। এই ঘটনায় যারা মারা গেছে এবং সংসদে যাদের শোক প্রস্তাব আনা হয়েছে তাদের সকলের আত্মার মাগফিরাত কামনা করছি।

শেখ হাসিনা বলেন, ইসলাম ধর্মের নামে যারা জঙ্গিবাদ ও সন্ত্রাস করে তারা আমাদের এই পবিত্র ধর্মের পবিত্রতাকে সকল মানবজাতির কাছে হেয় প্রতিপন্ন করে দিচ্ছে। ইসলাম শান্তির ধর্ম। হিন্দু, মুসলমান, খ্রিস্টান, বৌদ্ধ- সব ধর্মে কিন্তু শান্তির কথা বলা আছে। তারপরেও কিছু লোক ধর্মীয় উন্মাদনায় মানুষের প্রতি আঘাত হানে। মানুষের জীবন কেড়ে নেয়। এটা মানবজাতির জন্য অত্যন্ত বেদনাদায়ক ও কষ্টকর।

তিনি বলেন, আমাদের দেশেও এ ধরনের বোমা হামলা, জঙ্গি হামলার ঘটনা ঘটেছে। আমরা তা কঠোর হস্তে দমন করেছি। দেশবাসীকে বলবো, সতর্ক থেকে কোথাও কোনও অস্বাভাবিকতা পেলে সঙ্গে সঙ্গে যেন আমাদের আইনশৃঙ্খলা রক্ষাকারী সংস্থাকে জানায়। আমরা চাই না এ ধরনের ঘটনা পৃথিবীর কোথাও ঘটুক।