• শনিবার, ডিসেম্বর ১৪, ২০১৯
  • সর্বশেষ আপডেট : ১০:৫২ রাত

ঘুমন্ত স্ত্রীকে ছুরিকাঘাতে হত্যা, স্বামী গ্রেফতার

  • প্রকাশিত ০৯:৩৩ রাত এপ্রিল ২৬, ২০১৯
কুপিয়ে হত্যা
প্রতীকী ছবি

জিজ্ঞসাবাদে ঘুমন্ত স্ত্রীকে হত্যার কথা স্বীকার করেছেন অভিযুক্ত ঐ ব্যক্তি

বগুড়ার নন্দীগ্রামে দাম্পত্য কলহের জেরে ঘুমন্ত স্ত্রীকে হত্যার অভিযোগে এক ব্যক্তিকে গ্রেফতার করা হয়েছে। বৃহস্পতিবার গভীর রাতে উপজেলার হাজারকি গ্রামে এই নির্মম ঘটনাটি ঘটে বলে নন্দীগ্রাম থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) নাসির উদ্দিন নিশ্চিত করেছেন।

নিহত ঐ গৃহবধূর নাম খোদেজা খাতুন (৩৮)। এই ঘটনায় পুলিশ নিহতের স্বামী ইমতাজুর রহমানকে গ্রেফতার করেছে।

পুলিশ এবং স্থানীয় সূত্রে জানা যায়, নিহত গৃহবধূর স্বামী ইমতাজুর পেশায় একজন ভ্যানচালক। দীর্ঘদিন ধরেই সংসারের নানা বিষয় নিয়ে স্ত্রীর সাথে তার প্রায়ই বচসা হতো। গত বৃহস্পতিবার রাতে খাবার পর ইমতাজুর ও খোদেজা তাদের ১০ বছর বয়সী মেয়েকে নিয়ে ঘুমাতে যান। তবে, রাত ২ টার দিকে ইমতাজুরের চিৎকারে পরিবারের সদস্য ও প্রতিবেশীরা জেগে ওঠেন। এসময় ইমতাজুর প্রতিবেশীদের কাছে দাবি করেন যে দুর্বৃত্তরা জানালা দিয়ে খোদেজাকে ছুরিকাঘাত করেছে। পরে গুরুতর আহত অবস্থায় খোদেজা বেগমকে বগুড়া শহীদ জিয়াউর রহমান মেডিকেল কলেজ (শজিমেক) হাসপাতালে নেয়া হয়। সেখানেই চিকিৎসাধীন অবস্থায় মারা যান ঐ গৃহবধূ। পরবর্তীতে পুলিশ তার লাশ উদ্ধার করে মর্গে পাঠায়।

এ ঘটনায় নন্দীগ্রাম থানায় নিহতের ভাই সোহরাব আলী বাদী হয়ে অভিযুক্ত ইমতাজুরের বিরুদ্ধে একটি হত্যা মামলা দায়ের করেছেন। এ প্রসঙ্গে ওসি নাসির উদ্দিন ঢাকা ট্রিবিউনকে বলেন, "স্বামী ইমতাজুর রহমান রহস্যজনক আচরণ করায় তাকে আটক করে জিজ্ঞাসাবাদ করা হয়। জিজ্ঞাসাবাদের এক পর্যায়ে সে ঘুমন্ত স্ত্রীকে ছুরিকাঘাতে হত্যার কথা স্বীকার করে। পরে আসামির জবানবন্দীর ভিত্তিতে তার বাড়ি থেকে হত্যায় ব্যবহাহৃত ছুরিটি উদ্ধার করা হয়। ঘটনার বিস্তারিত জানার জন্য এখন ইমতাজুরকে আরো জিজ্ঞাসাবাদ করা হচ্ছে"।

এদিকে ময়নাতদন্তের পর নিহতের লাশ তার পরিবারের কাছে হস্তান্তর করেছে পুলিশ।