• শনিবার, অক্টোবর ১৯, ২০১৯
  • সর্বশেষ আপডেট : ১২:৩৮ রাত

পাঁচ মাসের শিশুকন্যাকে সেপটিক ট্যাংকে ফেলে হত্যা করলো মা

  • প্রকাশিত ০৫:৩০ সন্ধ্যা মে ২, ২০১৯
শিশুমৃত্যু
প্রতীকী ছবি।

এ ঘটনায় কোনো মামলা দায়ের করা হয়নি

বগুড়ায় পাঁচ মাস বয়সী এক শিশুকন্যাকে টয়লেটের কুপে ফেলে হত্যা করার অভিযোগ উঠেছে ওই শিশুর মায়ের বিরুদ্ধে। বৃহস্পতিবার ভোরে শহরের মালগ্রামে দক্ষিণপাড়ায় এ ঘটনা ঘটে বলে নিশ্চিত করেছেন বগুড়া সদর থানার উপপরিদর্শক (এসআই) আবদুল খালেক।

নিহত ওই শিশুর নাম জামিয়া জান্নাত জিয়াম। এই ঘটনায় ওই শিশুর মা মৌসুমী আকতারকে (২৮) আটক করেছে পুলিশ। 

জানা যায়, নিহত শিশু জামিয়া জান্নাত জিয়াম শহরের মালগ্রাম দক্ষিণপাড়ার ব্যবসায়ী জান্নাতুল খৈয়াম জুয়েলের ও মৌসুমী আকতার দম্পতির একমাত্র সন্তান। বৃহস্পতিবার ভোর সাড়ে ৫টার দিকে মৌসুমী তার মেয়ে জিয়ামকে বাড়ির টয়লেটের সেপটিক ট্যাংকে ফেলে দিয়ে হত্যা করেন। তবে, নিহতের পরিবারের সদস্যদের দাবি, মৌসুমী মানসিক রোগে আক্রান্ত।

ঘটনা প্রসঙ্গে এসআই আব্দুল খালেক ঢাকা ট্রিবিউনকে বলেন, "শিশুটির লাশ উদ্ধার করে বগুড়া শহীদ জিয়াউর রহমান মেডিকেল কলেজ (শজিমেক) হাসপাতাল মর্গে পাঠানো হয়েছে।  জিজ্ঞাসাবাদের জন্য শিশুর মা মৌসুমীকে আটক করা হয়েছে। কিন্তু নিহত শিশুর বাবা জান্নাতুল খৈয়াম জুয়েল ও পরিবারের সদস্যরা দাবি করেছেন যে মৌসুমী মানসিক রোগে আক্রান্ত। তাই সে নিজের অবচেতন মনে মেয়েকে টয়লেটের সেপটিক ট্যাংকে ফেলে হত্যা করেছে"। 

তিনি আরো জানান, বিকাল পর্যন্ত এ ব্যাপারে কেউ মামলা দেয়নি।