• শুক্রবার, জুলাই ১৯, ২০১৯
  • সর্বশেষ আপডেট : ১০:৪৪ রাত

কৃষিমন্ত্রী: ফণীতে ক্ষতিগ্রস্ত ১৩ হাজার ৬৩১ কৃষক

  • প্রকাশিত ০৩:০১ বিকেল মে ৭, ২০১৯
ঘূর্ণিঝড় ফণী
ঘূর্ণিঝড় ফণীর আঘাতে ক্ষতিগ্রস্ত কৃষক। সৈয়দ জাকির হোসাইন/ঢাকা ট্রিবিউন

এদিকে, ঘুর্ণিঝড় ‘ফণী’র প্রভাবে ৩৫টি জেলায় ৩৮ কোটি ৫৪ লাখ ২ হাজার ৫০০ টাকার আর্থিক ক্ষতি হয়েছে বলেও জানান তিনি

ঘূর্ণিঝড় ফণীর প্রভাবে দেশের ৩৫ জেলায় ১৩ হাজার ৬৩১ জন কৃষক ক্ষতিগ্রস্ত হয়েছেন বলে জানিয়েছেন কৃষিমন্ত্রী ড. আব্দুর রাজ্জাক।

ঘুর্ণিঝড় ‘ফণী’র প্রভাবে ৩৫টি জেলায় ৩৮ কোটি ৫৪ লাখ ২ হাজার ৫০০ টাকার আর্থিক ক্ষতি হয়েছে। আর ১৩ হাজার ৬৩১ জন কৃষক ক্ষতিগ্রস্ত হয়েছে, বলেন তিনি।

মঙ্গলবার (৭ মে) সচিবালয়ে সংবাদ সম্মেলনে কৃষিমন্ত্রী এসব তথ্য জানান।

কৃষি সম্প্রসারণের তথ্য তুলে ধরে তিনি বলেন, ঘূর্ণিঝড় ‘ফণী’র কারণে দেশের প্রায় ৩৫টি জেলায় ২০৯টি উপজেলায় বোরো ধান, ভুট্টা, সবজি, পাট ও পান ফসলের প্রায় ৬৩ হাজার ৬৩ হেক্টর জমি আংশিক ক্ষতি হয়েছে। এছাড়া ৪৯ হেক্টর জমি সম্পূর্ণ ক্ষতি হয়েছে। এর মধ্যে বোরো ৫৫ হাজার ৬০৯, সবজি ৩ হাজার ৬৬০, ভুট্টা ৬৭৭, পাট ২ হাজার ৩৮২ওপান ৭৩৫ হেক্টর জমি আংশিক ক্ষতি হয়েছে।

ক্ষতিগ্রস্ত কৃষকদের দীর্ঘমেয়াদী পুনর্বাসন করা হবে জানিয়ে কৃষিমন্ত্রী বলেন,  “ক্ষতিগ্রস্ত কৃষকদের তালিকা তৈরি করে পুর্নবাসন কর্মসূচির আওতায় বীচ, সার ও আর্থিক সহায়তা প্রদান কর্মসূচি নেওয়া হবে।”

মন্ত্রী আরও বলেন, “বর্তমান সরকার কৃষিবান্ধব সরকার। কৃষি সম্প্রসারণ অধিদপ্তর কৃষি মন্ত্রণালয় বাংলাদেশ কৃষি ও কৃষকের পাশে থেকে কাজ করে যাচ্ছে। সামুদ্রিক ঘূর্ণিঝড়ের পূর্বাভাস পাওয়ার সাথে সাথে কৃষি সম্প্রসারণ অধিদপ্তর কর্তৃক পূর্বকালী, চলাকালীন ও আঘাত হানার পরবর্তী পদক্ষেপ গ্রহণ করা হয়েছে।”