• সোমবার, মে ২০, ২০১৯
  • সর্বশেষ আপডেট : ০৯:৩৬ রাত

রাজধানীতে ৫৬টি বাংলাদেশি পাসপোর্টসহ ২৪ রোহিঙ্গা আটক

  • প্রকাশিত ০৯:১০ রাত মে ১০, ২০১৯
গ্রেফতার/আটক
প্রতীকী ছবি

তাদেরকে একটি বাড়িতে রেখে বাংলা ভাষাও শেখানো হচ্ছিল।

রাজধানীর খিলক্ষেত এলাকা থেকে ২৪ রোহিঙ্গাকে আটক করেছে ঢাকা মেট্রোপলিটন পুলিশের গোয়েন্দা শাখা (ডিবি)।

শুক্রবার (১০ মে) খিলক্ষেত মধ্যপাড়া এলাকার একটি বাড়ি থেকে নারী ও শিশুসহ এসব রোহিঙ্গাকে আটক করা হয়। তাদের কাছ থেকে উদ্ধার করা হয়েছে ৫৬টি বাংলাদেশি পাসপোর্ট।

রোহিঙ্গাদের আশ্রয় দেওয়ার অপরাধে পুলিশ ওই বাড়ির মালিকের ছেলে কাজল এবং দালাল আয়ুবকেও গ্রেফতার করেছে।

বিষয়টি নিশ্চিত করে মহানগর গোয়েন্দা পুলিশ পশ্চিম জোনের সহকারী কমিশনার মোখলেছুর রহমান বলেন, দালালের মাধ্যমে পাসপোর্ট তৈরি করে তারা মালয়েশিয়া যাওয়ার পাঁয়তারা করছিল। সংগঠিত একটি চক্র তাদেরকে ঢাকায় নিয়ে আসে।

“তবে পাসপোর্টগুলো আসল কিনা তা এখনও নিশ্চিত হওয়া যায়নি।”

রোহিঙ্গারা কীভাবে বাংলাদেশি পাসপোর্ট পেল তা খতিয়ে দেখা হচ্ছে বলে জানান পুলিশ কমিশনার। জড়িতদের খুঁজে বের করা হবে। বিষয়টিকে অত্যন্ত গুরুত্ব সহকারে দেখছে পুলিশ।

ডিবি পুলিশের একটি সূত্র জানায়, আটক হওয়া রোহিঙ্গাদের গত সপ্তাহে ক্যাম্প থেকে ঢাকায় এনে খিলক্ষেতের ওই তিনতলা বাড়িটিতে রাখা হয়েছিল।

বাড়িটি বিমানবন্দরের কাছে হওয়ায় এটিকেই বেছে নেওয়া হয়েছিল। মালয়েশিয়া পাঠানোর আগে তাদেরকে ওই বাড়িতে রেখে বাংলা ভাষাও শেখানো হচ্ছিল। শিগগিরই তাদেরকে মালয়েশিয়া পাঠানো হতো, যোগ করে সূত্রটি।

উল্লেখ্য, ২০১৭ সালে মিয়ানমারে সামরিক বাহিনীর অত্যাচার থেকে বাঁচতে পালিয়ে বাংলাদেশে আসে প্রায় ১০ লাখ রোহিঙ্গা। অপরাধপ্রবণ এই গোষ্ঠিটি বাংলাদেশে আশ্রিত অবস্থাতেই খুন, ডাকাতি, মাদক ব্যবসাসহ বিভিন্ন ধরনের অপরাধমূলক কর্মকাণ্ডে জড়িয়ে পড়ে।

এর আগেও র‍্যাব, পুলিশ এবং বিজিবি দেশের বিভিন্ন স্থান থেকে রোহিঙ্গাদের আটক করেছে।