• বৃহস্পতিবার, ফেব্রুয়ারি ২৭, ২০২০
  • সর্বশেষ আপডেট : ১০:৪৯ রাত

মাদ্রাসাছাত্রীকে তুলে নিয়ে 'ধর্ষণ', সকালে মাঠ থেকে উদ্ধার

  • প্রকাশিত ০৫:৩৬ সন্ধ্যা মে ১১, ২০১৯
ধর্ষণ
প্রতীকী ছবি

আল-আমিন নামের এক তরুণসহ অপর একজন ওই ছাত্রীকে তুলে নিয়ে একটি মাঠের মধ্যে রাতভর ধর্ষণ করে।

ঝিনাইদহের কালীগঞ্জ উপজেলায় দশম শ্রেণীর এক মাদ্রাসাছাত্রীকে (১৫) তুলে নিয়ে ধর্ষণ করা হয়েছে বলে অভিযোগ উঠেছে। গতকাল শুক্রবার রাতে উপজেলার কোলা ইউনিয়নে এ ঘটনা ঘটে। 

জানা যায়, আল-আমিন নামের এক তরুণসহ অপর একজন ওই ছাত্রীকে তুলে নিয়ে একটি মাঠের মধ্যে রাতভর ধর্ষণ করে। ধর্ষণ শেষে তাকে হাত-পা ও মুখ বেঁধে ফেলে রেখে যায়। এ ঘটনার পর থেকে  আল-আমিন পলাতক রয়েছে। 

ওই ছাত্রীর বাবা জানান, শুক্রবার রাত আনুমানিক ৯টার দিকে বাড়ির পাশে মোবাইল ফোনের চার্জার আনতে যায় তার মেয়ে। সে সময়  ওঁৎ পেতে থাকা আল-আমিন ও তার সহযোগী তাকে তুলে নিয়ে রাতভর ধর্ষণ করে। ধর্ষণের পর তাকে হাত, পা ও মুখ বেঁধে মাঠের মধ্যে ফেলে রেখে পালিয়ে যায় তারা। রাতে অনেক খোঁজাখুঁজি করে পাওয়া যায়নি তার মেয়েকে। পরে শনিবার সকালে এক কৃষক মাঠে কাজ করতে গিয়ে তাকে পড়ে থাকতে দেখে। 

কালীগঞ্জ থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) ইউনুচ আলী বলেন, এক মাদ্রাসাছাত্রীকে ধর্ষণের অভিযোগে থানায় আল-আমিনসহ অজ্ঞাত অপর এক ব্যক্তির নামে মামলার প্রস্তুতি চলছে। পুলিশ আল-আমিনকে গ্রেপ্তারের চেষ্টা করছে। ওই ছাত্রীর ডাক্তারি পরীক্ষার জন্য ঝিনাইদহ হাসপাতালে পাঠানো হয়েছে।